মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে খেলাধুলার বিকল্প নেই–এমপি আবু জাহির

স্টাফ রিপোর্টারঃঃ

মুজিব বর্ষ উপলক্ষে হবিগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থা ও জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু ভলিবল টুর্ণামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে নবীগঞ্জ উপজেলা। বৃহস্পতিবার বিকেলে ফাইনালে তারা ২৫-১০,২০-২৫ ও ২৫-২০ সেটে হবিগঞ্জ পৌরসভাকে পরাজিত করে।

হবিগঞ্জ জালাল স্টেডিয়ামে ফাইনাল খেলা শেষে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন হবিগঞ্জ-৩ আসনের এমপি এডভোকেট মো. আবু জাহির।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি ও ভলিবল উপ-কমিটির আহবায়ক এডভোকেট শাহ ফখরুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক এডভোকেট মো. আলমগীর চৌধুরী,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহমুদুল হাসান,নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহিউদ্দিন আহমেদ, জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক এ, কে, এম দিদারুল আলম ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক বদরুল আলম। ভলিবল উপ-কমিটির সদস্য সচিব এডভোকেট বিভৎসু চক্রবর্ত্তী বিভু ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য ফেরদৌস আহমেদ এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য আসাদুজ্জামান, মেজবা আহমেদ জামি,

সাবেক যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক সফিকুজ্জামান হিরাজ, সাবেক সদস্য আব্দুল মোতালিব মমরাজ, জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি শহিদুর রহমান লাল, জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এডভোকেট আজিজুর রহমান খান সজল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাদিকুর রহমান মুকুল প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এমপি আবু জাহির বলেন, হবিগঞ্জে আধুনিক স্টেডিয়াম বাস্তবায়ন করায় এখন খেলাধুলা চর্চায় নতুন দিগন্ত সৃষ্টি হয়েছে। আমরা এই স্টেডিয়াম ও দেশের সবছেয়ে বড় রিসোর্ট প্যালেসকে কেন্দ্র করে হবিগঞ্জে আন্তর্জাতিক টুর্ণামেন্ট আয়োজন করব। খেলাধুলা শুধু শারিরিক ও মানসিক বিকাশই ঘটায়না বরং ব্যাপকভাবে খেলাধুলার চর্চা করা হলে মাদক মুক্ত সমাজ গড়া সম্ভব হবে।

খেলাধুলার মাধ্যমে নিজের দেশ ও এলাকার পরিচয় ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বব্যাপি। এর সবছেয়ে বড় উদাহরণ হল আর্জেন্টিনা। বাংলাদেশও বিভিন্ন খেলায় বিশেষ করে ক্রিকেটে সারাবিশ্বে আলোড়ন সৃষ্টি করতে স্বক্ষম হয়েছে।

প্রধান অতিথি পরে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার ও প্রাইজমানী তুলে দেন। টুর্ণামেন্টের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার লাভ করে নবীগঞ্জের কামরান। টুর্ণামেন্টে জেলার ১২টি দল অংশগ্রহণ করে।

Loading...