কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বাসদ(মার্কসবাদী) সিলেট জেলার শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ

বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল(মার্কসবাদী)-র সাধারণ সম্পাদক, বাম গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অন্যতম নেতা প্রবীণ রাজনীতিবিদ কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরী গত ৬ জুলাই রাত ১০টা ৫০ মিনিটে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালের আইসিইউতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তাঁর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বাসদ(মার্কসবাদী) কেন্দ্র ঘোষিত তিন দিনের শোক পালনের ৩য় দিনে ৯ জুলাই ২০২১, দুপুর ১২টায় সিলেট জেলা শাখার উদ্যোগে কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরীর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়।
কোভিড পরিস্থিতির কারণে ঘরোয়াভাবে সংক্ষিপ্ত পরিসরে আয়োজন করা হয় (লকডাউন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে বাম গণতান্ত্রিক আন্দোলনের সাথে যুক্ত সকল শ্রেণি পেশার মানুষদের নিয়ে শোকসভা আয়োজন করা হবে)। পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন যথাক্রমে বাসদ(মার্কসবাদী), বাংলাদেশ শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশন, বাংলাদেশ চা শ্রমিক ফেডারেশন, বাংলাদেশ নারী মুক্তি কেন্দ্র, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট সিলেট নগর ও শাবিপ্রবি শাখার নেতৃবৃন্দ।
পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ শেষে কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে উনার সংগ্রামী জীবনের নানাদিক তুলে ধরে আলোচনা করেন, বাসদ(মার্কসবাদী) সিলেট জেলার আহবায়ক কমরেড উজ্জ্বল রায়, এডভোকেট হুমায়ুন রশীদ সোয়েব, মোখলেছুর রহমান, রেজাউর রহমান রানা, রুবাইয়াৎ আহমেদ, প্রসেনজিৎ রুদ্র, বীরেন সিং, অজিত রায়, সাদিয়া নোশিন তাসনিম, পলাশ কান্ত দাশ, দোয়েল রায়, রাজু শেখ প্রমুখ।
নেতৃবৃন্দ বলেন, কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরীর মৃত্যু শুধু আমাদের দলের জন্য নয়, গোটা বাম গণতান্ত্রিক আন্দোলনের জন্য এক অপুরনীয় ক্ষতি। কমরেড মুবিনুল হায়দায় চৌধুরী শ্রমজীবী মানুষের মুক্তির লক্ষ্যে এদেশের বুকে একটি সঠিক বিপ্লবী দল গড়ে তোলার জন্য আজীবন  কষ্টসাধ্য সংগ্রাম করেছেন।
মানুষের মুক্তির জন্য যে জীবন তিনি উৎসর্গ করেছিলেন মৃত্যুর পরও তিনি তার দেহ মানবকল্যানে চিকিৎসা বিজ্ঞানের কাজে দান করে গেছেন। নেতৃবৃন্দ দৃঢ়কন্ঠে কমরেড মুবিনুল হায়দার চৌধুরীর স্বপ্ন পুরণের যে সংগ্রাম তা অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

 

 

 

— বিজ্ঞপ্তি ।।

Loading...