সঙ্কটকালীন সময়ে অভিভাবকদের সহায়তায় ও মানসম্পন্ন শিক্ষাদানে ইন্টারন্যাশনাল স্কুল ঢাকা’র নতুন উদ্যোগ

কোভিড-১৯ মহামারিতে দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বাধাগ্রস্ত হওয়ায় অনেক পরিবারই তাদের আর্থিক প্রয়োজন মেটাতে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। যেসব অভিভাবকরা তাদের বাচ্চাদেরকে স্কুল পর্যায়ের শিক্ষা শুরু করাতে চান অথবা সন্তানকে ভালো স্কুলে ভর্তি করাতে চান, তাদের জন্য স্কুলের ভর্তি- ফি’র খরচ নতুন আর্থিক অসুবিধা তৈরি করবে।

বৈশ্বিক এ সঙ্কটে অভিভাবকদের সহায়তায় ও শিক্ষার্থীদের সত্যিকার আন্তর্জাতিক শিক্ষাগ্রহণের সুযোগ করে দিতে নতুন শিক্ষার্থীদের ভর্তি ফি’তে ছাড় দিচ্ছে ইন্টারন্যাশনাল স্কুল ঢাকা (আইএসডি)।

এ সম্পর্কে ইন্টারন্যাশনাল স্কুল ঢাকা’র (আইএসডি) নতুন পরিচালক থমাস ভ্যান ডার উইলেন বলেন, “করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে অসংখ্য পরিবার আর্থিক অস্থিতিশীলতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন। এই ধরনের চরম পরিস্থিতিতে সন্তানকে ভালো স্কুলে ভর্তি করতে চান এমন অনেক বাবা-মায়ের ওপর বাড়তি চাপ তৈরি হচ্ছে।

বিষয়টি বিবেচনায় রেখে, নতুন শিক্ষার্থীদের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা কার্যক্রমের সাথে যুক্ত করতে আমরা ভর্তি-ফি’তে সাময়িক ছাড় দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমাদের বিশ্বাস, এ উদ্যোগটি এমন প্রতিকূল সময়ে অভিভাবকদের জন্য সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।”

আইএসডি’র ২০ বছরের বেশি ইতিহাসে, স্কুলটি প্রথমবারের মতো ভর্তিতে ৮ হাজার মার্কিন ডলারের ১০০ শতাংশ ছাড়ের সুযোগ দিচ্ছে। চলমান মহামারির মাঝে সন্তানের জন্য উন্নতমানের শিক্ষা নিশ্চিত করতে চাওয়া অভিভাবকদের সহায়তা করার জন্য এই উদ্যোগটি গ্রহণ করা হয়েছে।

বাসায় থাকার ফলে শিক্ষার্থীরা স্কুলে বন্ধু ও সহপাঠীদের সাথে দেখা করতে পারছে না, পাশাপাশি তাদের পূর্ণাঙ্গ মানসিক বিকাশেও এর প্রভাব পড়ছে। সরকারিভাবে আদেশ পাওয়া গেলে, অনেকদিন ধরে ঘরে বন্দী থাকা শিক্ষার্থীদের জন্য আইএসডি এর দর্শনীয় ক্যাম্পাস খুলে দিতে প্রস্তুত রয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

প্লে-গ্রুপ থেকে গ্রেড-১২ পর্যন্ত নতুন ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীরা আগামী ১৫ আগস্ট পর্যন্ত এ ছাড়ে আইএসডি’তে ভর্তি হতে পারবেন। ভর্তির জন্য সীমিত সংখ্যক আসন খালি রয়েছে, যা আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে পূরণ করা হবে। আগ্রহী অভিভাবকরা অ্যাডমিশন অফিসের সাথে যোগাযোগের মাধ্যমে এ সুবিধা গ্রহণ করতে পারেন

 

 

 

 

— বিজ্ঞপ্তি ।।

Loading...