“মৌলভীবাজার মেডিকেল কলেজ কমলগঞ্জে প্রতিষ্ঠা”

হাসান চৌধুরী (শিপন) লন্ডন থেকেঃঃ

সুজলা সুফলা শস্য শ্যামলা অপরূপ সৌন্দর্য মন্ডিত মৌলভীবাজার জেলার অন্যতম উপজেলা হচ্ছে কমলগঞ্জ। চা বাগান অধ্যুষিত এলাকায় রাবার, পান আনারস, লেবু, ধান এবং আরো অনেক শস্যক্ষেতে ভরপুর প্রকৃতির এক অপূর্ব নিদর্শন রয়েছে কমলগঞ্জে। রয়েছে পাঁচ তারকা বিশিষ্ট হোটেল, লউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান, মাধবপুর লেক, হামহাম জলপ্রপাত, বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য শমসেরনগর বিমানবন্দর, বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমানের স্মৃতি বিজরিত স্মৃতিসৌধ।

এলাকার ইতিহাস-ঐতিহ্য বিশ্লেষণ করলে দেখা যায় যুগে যুগে অসংখ্য ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ, মুক্তিযোদ্ধা এবং উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার জন্ম হয়েছে কমলগঞ্জে। উল্লেখযোগ্যদের মধ্যে কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল থেকে ৬ বার নির্বাচিত বীর মুক্তিযোদ্ধা ডক্টর মো: আব্দুস শহীদ এমপি এবং আমার পূর্বপুরুষ, ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, মৌলভীবাজার জেলার আজীবন সভাপতি, স্বাধীন বাংলাদেশের নির্বাচিত সাংসদ, মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে সরকারের অন্যতম শক্তি মোহাম্মদ ইলিয়াসের জন্ম কমলগঞ্জে, যার চাচা খান বাহাদুর বজলুল হাসান চৌধুরী সিলেটের প্রথম এমবিবিএস ডাক্তার এবং ব্রিটিশ সরকারের অন্যতম একজন প্রধান সার্জন ছিলেন।

কমলগঞ্জে মুসলিম, হিন্দুসহ রয়েছে আদিবাসীদের বসবাস। এই কমলগঞ্জের ভূমিতে অনেক ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার জন্মগ্রহণ করেছেন, যাদেরকে উচ্চশিক্ষার জন্য জন্য উচ্চশিক্ষার জন্য জেলার বাইরে এবং বিদেশে পাড়ি দিতে হয়েছে।

যাতায়াতের জন্য এলাকায় রয়েছে রেলপথ, সড়কপথ, নদীপথ এবং শমশেরনগর বিমানবন্দর যা পুনরায় চালু করা যেতে পারে। এলাকায় রয়েছে অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, যার মধ্যে অন্যতম স্বনামধন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিটিআরআই এবং বিএফ শাহীন কলেজ। এই প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে প্রচুর মেধাবী মেধাবীদের উচ্চশিক্ষার জন্য দেশ-বিদেশের বিভিন্ন জায়গায় যেতে হয়। মেডিকেল কলেজ কমলগঞ্জে প্রতিষ্ঠিত হলে অদূর ভবিষ্যতে ছাত্র-ছাত্রীদেরকে আর দুর্ভোগ পোহাতে হবে না।

একটি আধুনিক মডেল মেডিকেল কলেজের জন্য পর্যাপ্ত জায়গা, উপযুক্ত স্থান, যোগাযোগ ব্যবস্থা, ছাত্র-ছাত্রী নিবাস, শিক্ষক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আবাসিক এলাকা, লাইব্রেরী, অডিটোরিয়াম, রিসার্চ সেন্টার, বিনোদন কেন্দ্র, খেলাধুলার মাঠ, ধর্মীয় উপাসনালয় এবং সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের জন্য উপযুক্ত জায়গা প্রয়োজন, যা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন হিড বাংলাদেশের প্রায় ৩৫৮ একর জায়গায়, হিড বাংলাদেশের কার্যক্রম এবং একটি আধুনিক মেডিকেল এ দুইয়ের কার্যক্রম একসাথে স্বাচ্ছন্দ্যে চলতে পারে।

বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা এবং জায়গার অভাবে পূর্বে অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং প্রজেক্টগুলো মৌলভীবাজারে প্রতিষ্ঠা লাভ করতে পারেনি। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ হিড বাংলাদেশের আওতায় কমলগঞ্জে বর্তমানে প্রায় ৩৫৮ একর জায়গা রয়েছে, যার সিংহভাগই বর্তমানে হিড বাংলাদেশের সীমিত কার্যাবলীর কারণে অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। এখানে সচ্ছন্দে ঝুট-ঝামেলা ছাড়াই একটি মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠা করা যেতে পারে।

তৃণমূল থেকে উঠে আসা প্রবীণ এবং জনপ্রিয় জননেতা, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ, সাবেক জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক সফল চিফ হুইপ, কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল থেকে সর্বাধিকবার নির্বাচিত এমপি, সভাপতি অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি, শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জের রূপকার, বীর মুক্তিযোদ্ধা উপাধ্যক্ষ ডক্টর মো: আব্দুস শহীদ এমপি এবং তার সহযোগী সকলকে, বরাবরের মতো কমলগঞ্জবাসীদের জন্য সুচিন্তা, প্ল্যান-পরিকল্পনা এবং সর্বদা পাশে থাকার জন্য, আমি কমলগঞ্জ উপজেলা ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন, কমলগঞ্জবাসি এবং আমার পরিবারের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

আমি এই গণদাবি এবং জনমত সৃষ্টিসহ এমপি মহোদয়ের সাথে একযোগে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করছি। আশা করি দীর্ঘদিনের আশা-প্রত্যাশা মৌলভীবাজার মেডিকেল কলেজ কমলগঞ্জে স্থাপনে স্থান, কাল, পাত্রভেদে, দেশ-বিদেশের সবাই একযোগে কাজ করবেন, উন্নয়নের জোয়ার হিসাবে মৌলভীবাজার মেডিকেল কলেজ কমলগঞ্জে প্রতিষ্ঠা লাভ করবে যা চিকিৎসা বিজ্ঞান, দেশ ও জাতিকে আরও এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে এবং সবাই উপকৃত হবেন, ইনশাআল্লাহ!

Loading...