কমলগঞ্জে শিশুর শ্লীলতাহানি: মসজিদের ইমাম আটক

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জে পৌর এলাকার নছরতপুর জামে মসজিদের ইমামকে ১১ বছর বয়সী এক মেয়ে শিশুর সাথে শ্লীলতাহানির অভিযোগে আটক করেছে পুলিশ।

আজ বুধবার (১৬ই জুন) সকাল ৭টায় নছরতপুর জামে মসজিদে ওই শিশুর শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে স্পর্শ করেন ও তার সাথে জোর পূর্বক অশালীন আচরণ করেন ইমাম। আটক ইমামকে মৌলভীবাজার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি চুনারুঘাট থানার গোলগাঁও গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে।

অভিযোগকারী দায়ের করা মামলার সূত্রে জানা যায়, নছরতপুর জামে মসজিদে প্রতিদিনের মত শিশু-কিশোরদের মক্তবে পাঠদান করান ইমাম। আব্দুস সালামের ১১ বছর বয়সী শিশু মসজিদে পাঠ গ্রহণ করতে যায়। এই সময়ে মসজিদের ইমাম শফিকুল ইসলাম (৪২) সকাল সাড়ে ৮টায় অন্য শিক্ষার্থীদের পাঠদান শেষে ছুটি দিয়ে দেন। পরে শিশু মেয়েকে দরকার কথা বলে মসজিদের পাশে ইমাম সাহেব থাকার রুম হুজরায় নিয়ে গিয়ে জোর পূর্বক শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে স্পর্শ করেন এবং অশালীন আচরণ করেন।

শিশু মেয়েটি বাড়ীতে গিয়ে ঘটনাটি পরিবারের সদস্যদেরকে জানালে শিশুর বাবা আব্দুস সালাম বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে এএসআই মামুদ আলীর নেতৃত্বে একদল পুলিশ আসামী শফিকুল ইসলামকে কুশালপুর গ্রাম থেকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে মৌলভীবাজার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে মসজিদের ইমাম শফিকুল ইসলাম অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, শিশুটি পড়া না পারায় বেত্রাঘাত করেছিলাম। তাই শিশুর পরিবার মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

কমলগঞ্জ থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিকে গ্রেপ্তার করে মৌলভীবাজার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Loading...