গোলাপগঞ্জ সড়ক দুর্ঘটনায় বড় ভাইয়ের পর মারা গেলেন ছোট ভাই

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি:

গোলাপগঞ্জে বাস-অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে গুরুতর আহত সিনএজি অটোরিকশা চালক ইমরান আহমদ (১৮) সিলেট একটি হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গিয়েছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্নাইলাইহি রাজিউন)। গতকাল শনিবার ভোর ৬ টা ১০ মিনিটের দিকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। শনিবার বাদ মাগরিব নালীউরি জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে মরহুমের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পরে তাকে স্থানীয় করব স্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়।

 

এর আগে দুর্ঘটনার দিন বুধবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার বড় ভাই আম্বর আলী মারা যান। দুর্ঘটনায় আহত বাকি ২ জনের অবস্থাও খারাপ। তারাও বর্তমানে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন।

ইমরান আহমদের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার মামাতো ভাই ফরহাদ আহমদ। নিহত ইমরান আহমদ উপজেলার ভাদেশ্বর নালিউরি গ্রামের মৃত মনচই মিয়ার ছেলে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার রাত ৯টার দিকে গোলাপগঞ্জ-ভাদেশ্বর সড়কে গোলাপগঞ্জ থেকে ভাদেশ্বরগামী বাস (সিলেট জ- ১১-০৪২৪) ও ভাদেশ্বর থেকে ঢাকাদক্ষিগামী সিএনজিচালিত অটোরিকশা কানিশাইল গ্রামের সয়াবিনের দোকানের সামনে আসা মাত্র মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে সিএনজি অটোরিকশাটি দুমড়ে মুচড়ে যায়।

এসময় সিনএজি অটোরিকশার চালকসহ ৪ জন মারাত্মক আহত হোন। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে তাদের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত ডাক্তার তাদের সিলেট ওসমানী হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

Loading...