করোনা: ভারতে ব্ল্যাক-হোয়াইটের পর এবার ‘ইয়েলো ফ্যাঙ্গাসে’র সংক্রমণ!

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

ভারতে ব্ল্যাক-হোয়াইট ফ্যাঙ্গাস শনাক্তের পর এবার ‘ইয়েলো ফ্যাঙ্গাসে’র সংক্রমণ ধরা পড়েছে। গতকাল সোমবার দেশটির উত্তর প্রদেশের গাজিয়াবাদ শহরে ওই ফাঙ্গাসে আক্রান্ত এক রোগীর সন্ধান পাওয়া যায়। সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ইএনটি বিশেষজ্ঞ বিপি তায়াগি বলেছেন, দিল্লি সংলগ্ন গাজিয়াবাদের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ৪৫ বছর বয়সী এক রোগী ‘ইয়েলো ফ্যাঙ্গাসে’র লক্ষণ নিয়ে ভর্তি হয়েছেন। ওই রোগীর একইসঙ্গে ব্ল্যাক এবং হোয়াইট ফাঙ্গাসের লক্ষণও আছে। চিকিৎসকের মতে, ইয়েলো ফ্যাঙ্গাসের লক্ষণ হলো অলসতা, ক্ষুধা না থাকা, ওজন কমে যাওয়া। তবে সংক্রমণ বাড়তে থাকলে রোগীর দেহে পুজ ফেটে যাওয়ার মতো উপসর্গও দেখা যায় বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। এ ছাড়া দেহে এই সংক্রমণের উপস্থিতি থাকলে ক্ষত না সারা বা শুকোতেও সময় লাগে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

ডা. তায়াগির মতে, ইয়েলো ফাঙ্গাস একটি মারাত্মক সংক্রমণ যা অভ্যন্তরীণভাবে শুরু হয়। তাই প্রাথমিকভাবে এটি শনাক্ত করা গেলে চিকিৎসা করা সহজ হবে। এ কারণে এর লক্ষণগুলোর দিকে খেয়াল রাখা জরুরি। তিনি জানান, অ্যান্টি-ফাঙ্গাল ইনজেকশন আম্ফোটেরেসিন বি এটি প্রতিরোধে কার্যকর। ডা. তায়াগি বলেন, এই রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, স্যানিটেশন এবং স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখা জরুরি। কারণ এই ফ্যাঙ্গাস অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ ও আর্দ্রতায় বিস্তার লাভ করে।

চিকিৎসকদের মতে, ইয়েলো ফাঙ্গাসের সংক্রমণ দেহের ভিতরে প্রভাব বিস্তার করায় এটি ব্ল্যাক বা হোয়াইট ফাঙ্গাসের তুলনায় ক্ষতিকর। এই ফাঙ্গাসের উপসর্গ দেখা দিলে তাই দ্রুত চিকিৎসা শুরু করা উচিত বলে পরামর্শ দিয়েছেন তারা। ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে করোনা থেকে সেরে ওঠা রোগীদের মধ্যে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস বা মিউকরমাইকোসিস সংক্রমণ দেখা দিচ্ছে। এ পর্যন্ত দেশটিতে প্রায় ১০ হাজার মানুষ এই ফ্যাঙ্গাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

 

 

 

সূত্র:— এনডিটিভি।

Loading...