https://www.afgoiania.net/profile/daftar-23-situs-slot-online-terbaru-2022-gacor/profile

সিলেটে গনধর্ষণ মামলার পলাতক আসামী গ্রেফতার

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

কানাইঘাট থানার বড়বন্দ ১ম খন্ড গ্রামের জনৈক এক মেয়ে সিলেট টিলাগড় এলাকায় বাসা বাড়িতে কাজ করত। মেয়েটি সিলেট থেকে মাঝে মধ্যে বাড়িতে বেড়াইতে আসলে আসামী মোঃ সেলিম উদ্দিন (২৪), পিতা-মোঃ নুর উদ্দিন, সাং-নয়াখেল পূর্ব, ইউ/পি-৩নং চারিকাটা, থানা-জৈন্তাপুর, জেলা-সিলেট এর সাথে দেখা হইত। একপর্যায়ে এদের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে উঠে। সম্পর্ক চলাকালীন সময়ে মেয়েটিকে আসামী মোঃ সেলিম উদ্দিন বিবাহ করবে বলিয়া আশ্বাস প্রদান করে। বিবাহের প্রলোভন দিয়া আসামী মোঃ সেলিম উদ্দিন তাহার বন্ধু বালিদারা গ্রামের কয়েছ রহমানের ছেলে আবু সেলিম (৩২) কে সাথে নিয়ে সিলেটের টিলাগড় হইতে মেয়েটি জৈন্তাপুর থানাধীন বালিদারা সাকিনে আইয়ূব আলীর ছেলে হারিছ (৩৪) এর বাড়িতে নিয়ে যায়। হারিছ এর সহযোগীতায় তাহারা ২ বন্ধু আসামী মোঃ সেলিম উদ্দিন ও আবু সেলিম মেয়েটি গণধর্ষন করে। এই সংক্রান্তে মেয়ের বাবা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করিলে মামলা রুজু পূর্বক মামলার তদন্তকারী অফিসার জনাব মোঃ ওমর ফারুক ইন্সক্টের (তদন্ত) জৈন্তাপুর মডেল থানা, সিলেট একাধিক অভিযান পরিচালনা করিয়া আসামী আবু সেলিম ও হারিছ-কে গ্রেফতার করিতে সক্ষম হইলেও মামলার মূল আসামী মোঃ সেলিম উদ্দিন পলাতক হয়ে যায়।
 পরবর্তীতে সিলেট জেলার পুলিশ সুপার মোঃ ফরিদ উদ্দিন, পিপিএম এর সার্বিক দিক নির্দেশনায় জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম দস্তগীর আহমেদ এর ত্বত্তাবধায়নে, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মোঃ ওমর ফারুক এর নেত্বত্তে জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশ গণধর্ষনের মূল অভিযুক্ত আসামীকে জৈন্তাপুর থানার নয়াখেল পূর্ব সাকিনস্থ ভারতের সীমান্ত সংলগ্ন এলাকা হইতে ইং ২২/০৫/২০২১ তারিখ রাত অনুমান ০৩:৪৫ ঘটিকার সময় গ্রেফতার করিয়া বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করেন।
Loading...