প্রধানমন্ত্রীর উপহার যেন এক স্বপ্নপুরী চুনারুঘাটে প্রস্তুত ভূমিহীন ও গৃহহীনদের ঘরগুলো

smart

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি ॥
‘আশ্রয়নের অধিকার শেখ হাসনিার উপহার’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে আশ্রয়ন-২
প্রকল্পের আওতায় ক শ্রেণীর জন্য হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার সীমান্ত
ঘেঁষা গাজীপুর ইউনয়িনে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার
৮০টি ঘরের মধ্যে ৭৪টি ঘরের নির্মাণ কাজ প্রায় সম্পন্ন হয়েছে। খুব শিগরিই
বাকী ৬টি ঘরের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করা হবে।
উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের ইকরতলী গ্রামে এ ঘরগুলো নির্মাণ করা হযেছে।
সারিবদ্ধভাবে ঘরগুলো নির্মাণ করায় অত্র এলাকার রূপ বদলে গেছে। দেখলে মনে
হয় যেন উন্নত স্বপ্নপুরীসম কোন এক ছোট শহর। শনিবার ২৩‘ই জানুয়ারী এ
স্বপ্নপুরীর বাসিন্দা হতে যাচ্ছেন ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারগুলো।
সৌন্দর্যমন্ডিত এ সকল ঘরের কারণে যেমন বদলে গেছে পূর্বেকার কদাচিৎ রূপ।
তেমনি ভাগ্যবদলের কারণে অত্যন্ত খুশি এর সুফলভোগি ও এলাকাবাসী।
প্রধানমন্ত্রীর দেয়া এ ঘরে সারাজীবন কাটাবেন ভূমিহীন ও গৃহহীনরা। যারা
আগে অন্যের জমিতে, কেউবা কারো বাড়ির এক কোণে, আবার কেউবা রাস্তার পাশে
ঝুপড়ী ঘরে সমাজের বোঝা হয়ে অভিশপ্ত জীবন কাটাতেন। তারা আজ প্রধানমন্ত্রীর
এ উপহার ঘর পেয়ে আনন্দে আত্মহারা।
ঘর পাচ্ছেন এমন কয়েকজন সুফলভোগী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু আর তার কন্যা
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করি। শেখ হাসিনা যেন বেশি দিন বেঁচে
থাকেন, আল্লাহর নিকট সে প্রার্থনা কামনা করি আমরা সবসময়। আরো কয়েকজন
উপকারভোগীর সাথে কথা হলে তারাও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ূ
কামনাসহ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মার শান্তি কামনা
করেন।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্লাবন পাল মুঠোফোনে এ প্রতিনিধিকে
বলেন, চুনারুঘাটে অর্থ বছরে ৮০টি ঘর বরাদ্দ পেয়েছি আমরা। ৮০টি গৃহের
মধ্যে ৭৪টি গৃহ নির্মাণ কাজ প্রায় সম্পন্ন হয়েছে। খুব শিগরিই বাকী ৬টি
গৃহ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করা হবে। তিনি বলেন, ভূমিহীন ও গৃহহীন প্রতি
পরিবারকে ২শতাংশ জমিসহ ১লাখ ৭১ হাজার টাকা ব্যায়ে ২টি বেড রুম, একটি করে
কিচেন ও বাথরুম এবং একটি বারান্দা বিশিষ্ট টিনশেড পাকা ঘর তৈরী সম্পন্ন
হয়েছে। আগামী ২৩ জানুয়ারী মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী
ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঘরগুলো উদ্বোধন করে গৃহহীনদরে মধ্যে হস্তান্তর
করবেন।
এ ব্যাপারে বক্তব্য নিতে চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মোবাইল
ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্ঠা করলে, তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close