৬ মাসের মধ্যে বাংলাদেশকে জলবায়ু তহবিল দেওয়ার দাবি জানালো সবুজ আন্দোলন

আগামী ৬ মাসের মধ্যে বাংলাদেশকে আন্তর্জাতিক জলবায়ু তহবিল দেওয়ার দাবি জানিয়েছে পরিবেশবাদী সংগঠন সবুজ আন্দোলন। আজ ২২ জানুয়ারি ২০২১ সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ দাবি জানান সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার।

বিজ্ঞপ্তিতে বাপ্পি সরদার বলেন, “পরিবেশবাদী সংগঠন সবুজ আন্দোলন ২০১৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর যাত্রা শুরু করার পর থেকে রাষ্ট্রের পক্ষে জলবায়ু পরিবর্তন ও পরিবেশ বিপর্যয় নিয়ে জনসচেতনতা তৈরিতে কাজ করছে। আমরা শুরু থেকেই রাষ্ট্রের পক্ষে আন্তর্জাতিক জলবায়ু তহবিল আদায়ের জন্য জোর দাবি জানিয়ে আসছি। গতকাল ২১ জানুয়ারি ২০২১ইং পৃথিবীর সবচেয়ে প্রভাবশালী দেশ যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তার নির্বাহী আদেশে প্যারিস চুক্তিতে ফিরে আসেন। সারা পৃথিবীর পরিবেশবাদী নেতাকর্মীরা তার এই আদেশে স্বাক্ষর করার পর থেকে আশায় বুক বেঁধেছে। আমেরিকার নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্যারিস চুক্তি তে ফিরে আসায় আমরা তাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি।”

তিনি আরো বলেন, “আগামী ৬ মাসের মধ্যে বাংলাদেশ সরকারকে আন্তর্জাতিক জলবায়ু তহবিল প্রদান করার জন্য। যে সকল দায় রাষ্ট্র পরিবেশ বিপর্যয় ও জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য দায়ী অনতিবিলম্বে তারা যেন বাংলাদেশকে ক্ষতিপূরণ প্রদান করে। পাশাপাশি ২০৩০ সালের মধ্যে কার্বন নিঃসরণের পরিমাণ অর্ধেক এবং ২০৫০ সালের মধ্যে কার্বন নিঃসরণ শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনার দাবি জানাচ্ছি। এছাড়াও পরিবেশ বিপর্যয়ের ফলে বিশুদ্ধ পানি, কৃষি ও স্বাস্থ্যখাতের ঝুঁকি মোকাবেলায় সার্বিক সহযোগিতা করার জন্য প্রশিক্ষণ কর্মশালা তৈরিতে কার্যকরী পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি।”

উল্লেখ্য, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় ২০১৫ সালে প্যারিস চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এখন পর্যন্ত ১৮৯টি দেশ এই চুক্তির অন্তর্ভুক্ত। সদ্য বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০১৭ সালে গুরুত্বপূর্ণ এই জলবায়ু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে সরিয়ে নেন। কিন্তু ক্ষমতায় এসেই এই চুক্তিতে ফের যোগ দেওয়ার ঘোষণা করেছেন বাইডেন। শুধু তাই নয়, তিনি জানিয়েছেন, পরিবেশ নিয়ে যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত নেবে যুক্তরাষ্ট্র।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close