নগরীতে তামান্না হত্যা: ভাবির সাথে পরকীয়ায় সম্পর্ক ছিলো মামুনের

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

প্রতিদিন মামুন তার চাচাতো ভাই মাহবুবের স্ত্রী (ভাবির) সাথে ফোনে কথা বলতো। বাসায় এনে আমার মেয়ের সামনে তার ভাবির সাথে শারীরিক কাজ করতো। আমার মেয়ে বাঁধা দিলে সে আমার মেয়েকে নির্যাতন করতো। কাউকে বললে মেরে ফেলার হুমকি দিতো। যৌতুকের টাকার জন্য মারধর করতো। এসব কথা বলছেন আর কান্নায় ভেঙে পড়ছেন সিলেটে স্বামীর হাতে নির্মম ভাবে খুন হওয়া তামান্না বেগমের মা।

সিলেট নগরীর উত্তর কাজীটুলার এলাকার অন্তরঙ্গ ৪/এ বাসার দুতলার একটি কক্ষ থেকে সোমবার (২৩ নভেম্বর) দুপুর দেড়টায় দক্ষিণ সুরমা থানার লালাবাজার ইউনিয়নের ফুলদি এলাকার মেয়ে নববধূ সৈয়দা তামান্না বেগমের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এর আগ থেকেই তামান্নার স্বামী আল মামুন পলাতক রয়েছেন।

এদিকে, গত সোমবার (২৩ নভেম্বর) রাতে নিহতের ভাই সৈয়দ আনোয়ার হোসেন রাজা বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় মামলা ( নং ৫৮) দায়ের করে। মামলায় নিহতের স্বামী মো. আল মামুনসহ ৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলায় মামুন ছাড়াও অন্য আসামিরা হলেন- এমরান, পারভীন, মাহবুব সরকার, বিলকিস ও শাহনাজ। এছাড়া অজ্ঞাতনামা আরও কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে।

এরপর সোমবার (২৩ নভেম্বর) রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এজহার নামীয় ২নং আসামী এমরানকে কোতোয়ালি থানাধীন সোবহানীঘাট এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বাকিরা এখনো পলাতক রয়েছেন বলে জানা যায়।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close