নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধে আইনের যথাযথ প্রয়োগের বিকল্প নেই

নারী ও শিশুর প্রতি নির্যাতন ও যৌন হয়রানি প্রতিরোধে সুশিল সমাজ ও সেবা প্রদানকারী সংস্থার সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। ব্র্যাক সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচি সিলেটের আয়োজনে বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) সিলেট সদর উপজেলার পরিষদ হলরুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জিজেডি টেকনিক্যাল ম্যানেজার মহসিনের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী মহুয়া মমতাজ।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতি সিলেট বিভাগীয় প্রধান এড. সৈয়দা শিরিন আক্তার, সদস্য এড. শাহানা আক্তার, সদস্য এড. ফারজানা হাবিব চৌধুরী, হযরত শাহপরান (র:) উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. খসরুজ্জামান তাপাদার।
সভায় বক্তারা বলেন, পুরুষ শাসিত এ সমাজের একটি বিশাল ব্যাধি ‘নারী নির্যাতন’। সমাজ ও সভ্যতা যত এগিয়ে যাচ্ছে, ততই যেন এ প্রবণতা বেড়ে চলেছে। মানুষ যতই সচেতন হচ্ছে, ততই নারী নির্যাতনের ক্ষেত্রে তাদের অজ্ঞতা বৃদ্ধি পাচ্ছে; বৃদ্ধি পাচ্ছে উদাসীনতা। দারিদ্র্য, বেকারত্ব ও অশিক্ষাসহ নানা কারণে নির্যাতিত হচ্ছে নারীরা। যৌতুকের দাবি মেটাতে না পেরে অসংখ্য নারীর জীবন হয়ে উঠেছে দুর্বিষহ। যৌতুক, বাল্যবিবাহ, বহুবিবাহ, তালাকসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিদ্যমান আইনগুলোর যথাযথ প্রয়োগ নেই। নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধে আইনের যথাযথ প্রয়োগ ও সকলের সহযোগিতার একান্ত প্রয়োজন।

আরও উপস্থিত ছিলেন সিলেট তথ্য সেবা কর্মকর্তা তথ্যকেন্দ্র মরিয়ম আক্তার, সিলেট সদর সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার সুভাষ চক্রবর্তী, সহকারী উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার মো. শফিকুল ইসলাম, খাদিমপাড়া ইউপি সদস্য ফাতেমা বেগম ও সাজেদা বেগম, দৈনিক জালালাবাদের সিনিয়র রিপোর্টার সাংবাদিক মো. মুহিবুর রহমান, জয়তুন ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক মো. শাহীন আহমদ, ব্র্যাক জেলা ব্যবস্থাপক কায়েম উদ্দিন, কর্মসুচী সংগঠক শ্যামল শর্ম্মা, আকিমূল ইসলাম, বিউটি রায়, নারী নেত্রী রুজি আক্তার ও পল্লী সমাজ সভা প্রধান আয়শা বেগম প্রমুখ।

— বিজ্ঞপ্তি ।।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close