এমসিতে গণধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেফতারে পুরস্কৃত ওসি সাইফুল

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

সিলেটে আলোচিত এমসি কলেজে গণধর্ষণ মামলার অন্যতম দুইজন আসামীকে গ্রেপ্তারে বিশেষ ভূমিকা পালন করায় পুলিশ সুপারের নিকট থেকে শুভেচ্ছা স্মারক ও নগদ অর্থ পুরস্কার পেলেন জেলা গোয়েন্দা শাখা (উত্তর) এর অফিসার ইনচার্জ সাইফুল আলম।

রোববার (১৮ অক্টোবর) দুপুর ১২ টায় জেলা পুলিশ লাইন্সের শহীদ এসপি শামছুল হক মিলনায়তনে মাসিক কল্যাণ সভায় পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম তাকে শুভেচ্ছা স্মারক সহ নগদ ২৫ হাজার টাকা পুরস্কার প্রদান করেন।

উল্লেখ্য, গত ২৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যার পর সিলেটের এমসি কলেজ ক্যাম্পাসে সংঘবদ্ধভাবে কয়েকজন এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করে। কলেজ ক্যাম্পাসে এ ধরণের ন্যাক্কারজনক ঘটনায় সারা দেশে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। আলোচিত এ ঘটনায় আসামী গ্রেপ্তার করার জন্য পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের পাশাপাশি জেলা পুলিশ তৎপর হয়ে উঠে। পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে জেলা পুলিশের একাধিক টিম অভিযানে নামে। এক পর্যায়ে জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ সাইফুল আলম এর নেতৃত্বে গত ২৭ সেপ্টেম্বর ভোর পাঁচ টায় হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর থানাধীন মনতলা সীমান্ত এলাকা থেকে গণধর্ষণ মামলার অন্যতম আসামী অর্জুন লস্করকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ধারাবাহিক অভিযানের অংশ হিসেবে তার একদিন পর জেলা গোয়েন্দা শাখা এবং কানাইঘাট থানার যৌথ টিম সিলেট শহরে একাদিক স্থানে অভিযান পরিচালনা করে জৈন্তাপুর থানাধীন হরিপুর এলাকা থেকে মামলার অন্যতম অপর আসামী মাহফুজুর রহমান মাসুমকেও গ্রেপ্তার করে।

তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম বলেন, আলোচিত এমসি কলেজের গণধর্ষণ মামলায় দ্রুত সময়ে আসামী গ্রেপ্তার করায় জেলা পুলিশসহ সামগ্রিকভাবে বাংলাদেশ পুলিশের সুনাম বৃদ্ধি হয়েছে। আগামীতেও জেলা পুলিশের ভাবমূর্তি অক্ষুন্ন রাখতে সবাইকে আন্তরিকভাবে কাজ করার নির্দেশ দেন পুলিশ সুপার।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close