আওয়ামীলীগ সরকার দেশের ধর্মীয় সম্প্রীতি রক্ষায় বদ্ধ পরিকর

উত্তম কুমার পাল হিমেল,নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ

এমপি গাজী মোহাম্মদ শাহনওয়াজ মিলাদ বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার দেশের ধর্মীয় সম্প্রীতি রক্ষায় বদ্ধ পরিকর। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বৃহৎ উৎসব আসন্ন শারদীয় দুর্গাপুজা সুন্দর ও সুষ্টভাবে পালন করতে ব্যাঘাত সৃস্টিকারীদের কোন ছাড় নেই। তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নবীগঞ্জ বাহুবলের উন্নয়নে আমি নিরলসভাবে কাজ কবে যাব। তিনি নবীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে হিন্দু সম্প্রদায়ের সর্ববৃহৎ উৎসব শারদীয় দুর্গাপুজা উপলক্ষ্যে উপজেলা পরিষদ মিলানায়তনে ১২ অক্টোবর সোমবার দুপুরে আইন-শৃঙ্খলা কমিটির বিশেষ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ মহি উদ্দিন সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি উপস্থিত ছিলেন নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এডঃ গতি গোবিন্দ দাশ,উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুমাইয়া মমিন, নবীগঞ্জ থানার ওসি আজিজুর রহমান,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী,সাংঘঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমদ মিলু, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সুখেন্দু রায় বাবুল, সাধারন সম্পাদক নির্মেলেন্দু দাশ রানা পৌর পুজা উদযাপন পরিষদেও সভাপতি বাবুল চন্দ্র দাশ, উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি নারায়ন রায়, সাধারন সম্পাদক সাংবাদিক উত্তম কুমার পাল হিমেল,নবীগঞ্জ পল্লীবিদ্যুতের ডিজিএম আলীবর্দী খান সুজন, আনসার কর্মকর্তা আব্দুল আউয়াল,ইউপি চেয়ারম্যান সত্যজিত দাশ,ইউপি চেয়ারম্যান আলী আহমদ মুছা। উপস্থিত ছিলেন,উপজেলা মহিলা আওয়ামিলীগের সভাপতি দিলারা বেগম,পৌর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান হাবিব,এস আই সমীরন দাশসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। এতে ইউনিয়ন পুজা কমিটির মধ্যে গৌতম কুমার দাশ,হরিপদ দাশ,অজিত কুমার দাশ,সুব্রত দেব শুভ,ধনঞ্জয় দাশ,প্রনব চন্দ্র দেব,সাধন চন্দ্র দাশ,নারায়ন চন্দ্র দাশ,নৃপেশ সুত্রধর,অঞ্জয় রায়,লিটন দেব,সুনাম গোস্বামীসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। সভায় বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের ১৩টি ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকবৃন্দ এবং ৯০টি পূজা মন্ডপের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভায় বর্তমান বৈশ্বিক দুর্যোগ করোনা পরিস্থিতি কারনে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের ২৬টি বিধিমালা ও সরকারী বিধিমালা অনুযায়ী স্বাস্থবিধি মেনে শারিরীক দূরত্ব বজায় রেখে পূজা উদযাপন করার জন্য আহবান জানানো হয়।
সভাপতির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মহি উদ্দিন বলেন, ৯০টি পূজা মন্ডপের জন্য ৯টি ভাগে আইনশৃংখলা বাহিনীকে ভাগ করা হয়েছে এবং মোবাইল কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে আইনশৃংখলা রক্ষা করতে বিশেষ ভূমিকা রাখা হবে। কোন বিশৃংখলা দেখা দিলে তাৎক্ষনিক উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে। উল্লেখ্য এ বছর নবীগঞ্জ উপজেলার ১৩ টি ইউনিয়নে ৮৪ টি ও পৌরসভায় ৬ টি সহ মোট ৯০ টি পূজা মন্ডপে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদেও সর্ববৃহৎ শারদীয় দুর্গাপুজা অনুষ্টিত হবে।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close