গোয়াইনঘাট-সালুটিকরের রাস্তার বেহাল দশা,জীবেনের ঝুকি নিয়ে জনসাধারণ ও পর্যটকের চলাচল !

গোয়াইনঘাট থেকে দূর্গেশ সরকার (বাপ্পী):

গোয়াইনঘাটে – সালুটিকর ও হাদারপার রাস্তার বেহাল দশা জীবেনের ঝুকি নিয়ে চলাছে পর্যটক ও জনসাধারণ চলাচল, যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরনে দূঘটনা।
গোয়াইনঘাট উপজেলার জনসাধারণের সিলেটের সাথে একমাত্র যোগাযোগ ব্যবস্থা সালুটিকর রাস্তাটি। যোগাযোগের একমাত্র রাস্তাটি কিছু অংশ বার বার বন্যা পানিতে তলিয়ে যাওয়ার করনে অনেক জাগায় সি সি ডালাই ভঙ্গে বেরিয়ে গেছে রড রাস্তার মাঝ খানে ও ব্রীজের মুখেগুলও অনেক অংশে ছোট বড় গর্ত হয়ে গেছে ।
চলাচলের দূরভোগ পড়েছেন গোয়াইনঘাট উপজেলার জনসাধারণ । গোয়াইনঘাট হতে হাদারপার ও সালুটিকর বাজার পর্যন্ত রাস্তাটি অনেক জাগায় ছোট বড় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি জমে যায়, এতে প্রাইয়েই ঘটছে দূরঘটনা এই হল গোয়াইনঘাটের উপজেলার জনসাধারনের চলাচলের রাস্তাটি চিত্র। উক্ত রাস্তটি দিয়ে দেশ- বিদেশী অনেক পর্যটক আসেন গোয়াইনঘাট প্রকৃতিক সৌন্দর্য লীলা ভূমি বিছনাকান্দি প্রাকৃতিক দৃশ উপভোগ করতে এসে পরছেন রাস্তার দূভোগে।
বিছনাকান্দিতে ঢাকা থেকে আশা একজন পর্যটকের সাথে কথা বললে তিন জানান সিলেটে গোয়াইনঘাট উপেজলা একটি পর্যটকশিল্পে নগরী হতে পারে অত্র এলাক যোগাযোগব্যবস্থা উন্নত হলে দেশ বিদেশের অনেক পর্যটক পিয়াসু মানুষ আসতে পারে। পর্যটকশিল্প নগরী হিসাবে ঘটতে পারে সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলা আরেকটি পরিচয় ।
এব্যাপারে গোয়াইনঘাট উপজেল নির্বাহী কর্মকতার মোঃ নাজমুস সাকিব সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান ব্ন্যা পরে উক্ত রাস্তায় কোন বরাদ্ধ আসেনি, আমরা ঊধ্বর্তর কর্মকতাদের সঙ্গে কথা বলেছি, যত শ্রীগ্রই সম্বব বরাদ্ধ আসতে পারে। অনেক সময় রাস্তায় মাঝে গর্তে পরে সিএজি ও ট্রক আটকে যায়, পরতে হয় জামে ।
এব্যাপারে আরও কথা হয় সিলেট জেলার ট্রাক,পিকআপ,কালভার্ডভ্যান এর অন্তরভুক্ত গোয়াইনঘাট উপজেলার পশ্চিম আঞ্চলিক শাখার শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হাফিজুর রহমানে সাথে কথা বলে জানাযায় অনেক সময় শ্রমিক উনিয়নের পক্ষ থেকে ইটের আধলা- বালু,ড্রাষ্ট দিয়ে রাস্তা গর্তগুলি ভরে যান চলাচলের উপযোগী করে থাকি। তিনি আরও বলেন রাস্তাটি জরুরী ভিত্তিতে সংস্কারের প্রযোজন এ জন্য কতৃপক্ষের সুদিষ্টি কামনা করছি,এটা গোয়াইনঘাটবাসীর অনেকদিনের দাবী।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close