পুরস্কৃত হলেন ফেঞ্চুগঞ্জ থানার পরিদর্শক তদন্ত খালেদ চৌধুরী

ফেঞ্চুগঞ্জ প্রতিনিধি ::

গত ১৩ আগস্ট সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ মাইজগাঁওয়ে খুন হন জুলেখা বেগম নামের এক নারী। এদিন ফেঞ্চুগঞ্জ থানায় এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয় (মামলা নং-৩)।

এই খুনের রহস্য উদঘাটন ও আসামি গ্রেফতার করে পুরস্কৃত হয়েছেন ফেঞ্চুগঞ্জ থানার পরিদর্শক তদন্ত খালেদ চৌধুরী। রবিবার জেলা মাসিক কল্যাণ সভায় খালেদ চৌধুরীর হাতে পুরস্কার তুলে দেন সিলেটের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম।

পুরস্কার পেয়ে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম ও ফেঞ্চুগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল বাসার মোহাম্মদ বদরুজ্জামানসহ অফিসার ফোর্সদের কৃতজ্ঞতা জানিয়ে খালেদ চৌধুরী বলেন, কাজের মূল্যায়নে পুরস্কার সবচেয়ে বড় প্রেরণা।

জানা যায়, গত ১৩ আগস্ট রাতে নারী খুনের খবর পেয়ে ফেঞ্চুগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল বাসার মোহাম্মদ বদরুজ্জামান, পরিদর্শক তদন্ত খালেদ চৌধুরী ও অফিসার ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল
ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার মাইজগাঁওয়ের মোল্লাটিলায় যান। সেখানে তারা দেখতে পান টয়লেটের ট্যাংকের ভিতরে জুলেখা বেগমের লাশ লুকানো। শুধু পা দেখা যাচ্ছে। পাশে তাজা রক্ত পড়ে আছে। এই রক্ত খুনিদের হতে পারে ভেবেই অভিযানে নামেন তারা।

এ ঘটনায় গ্রেফতার করা হয় খুনের মাস্টার প্ল্যনার ধূর্ত কালুকে (২০)। পরে চা বাগান থেকে গ্রেফতার করা হয় চতুর দ্বিতীয় আসামি নিদ্রাকে (২১)। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তারা খুনের কথা স্বীকার করে। পরে তাদের তথ্যমতে ভিকটিমের ঘর থেকে নিয়ে যাওয়া কিছু টাকাও উদ্ধার করা হয়। মূলত নিহত মহিলার টাকা লুটতেই খুন করে তারা।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close