চিকিৎসার জন্য খালেদার নিঃশর্ত অনুমতি চায় জাতীয়তাবাদী মহিলা দল

ওয়াসিম আকরাম, প্যারিস থেকেঃ

১৩ই সেপ্টেম্বর রবিবারঃ বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের ৪২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল ফ্রান্স শাখা।

এই ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় সভাপতি ও সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করেন ফ্রান্স মহিলা দলের সভানেত্রী ও কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদিকা মমতাজ আলো।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের কেন্দ্রীয় সভানেত্রী আফরোজা আব্বাস ও বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদিকা হেলেন জেরিন খান।

ইউরোপের বিভিন্ন দেশের মহিলা দলের নেতৃবৃন্দ যারা এই ভার্চুয়াল আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন এরা হলেন, ফ্রান্স মহিলা দল থেকে সাধারণ সম্পাদিকা ফেরদৌসী শিউলি, সাংগঠনিক সসম্পাদিকা হালিমা আক্তার, আয়েশা আক্তার, সুমি আক্তার, মাকসুদা রুমি, কানিজ ফাতিমা, সোনিয়া আক্তার। জার্মান থেকে সেলি মিয়া, বেলজিয়াম থেকে নাহিদা আক্তার, ফিনল্যান্ড থেকে মহিলা দলের নেত্রী কলি মবিন, ইতালি থেকে ফাহিমা আক্তার মুকুল, লায়লা শাহ, ডক্টর সেলিমা আফরোজ, সুইজারল্যান্ড থেকে মেহনাজ পারভিন মুক্তি, সুইডেন থেকে হাসিনা জাহান, নেদারল্যান্ড থেকে জুনু আক্তার, রুনা আলামীন, যুক্তরাজ্য থেকে ডালিয়া লাকুরিয়া, অঞ্জনা আলম, নাসরিন হাসান, লুনা সাবিরা, আরজুমান মুন্নি, পর্তুগাল থেকে খাদিজা বেগম, কানাডা থেকে রেহানা আক্তার, কবিতা নূর এবং বাংলাদেশ থেকে তাহামিনা সেন, খালেদা সুলতানা।

প্রধান অতিথির ভাষণে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের কেন্দ্রীয় সভানেত্রী আফরোজা আব্বাস বেগম জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ গমনেরর নিঃশর্ত অনুমতির জোর দাবী জানিয়ে বলেন, অনেক সরকারি লোক এমনকি দাগী-আসামীরা পর্যন্ত বিনাশর্তে বিদেশে উন্নত চিকিৎসা নিচ্ছে, তাহলে বেগম খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে কেন শর্ত দেয়া হবে। তিনিও আরো বলেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর বাংলাদেশের কোটি কোটি মানুষের হৃদয়ে অবস্থান করছেন। তিনি শুধু বিএনপির প্রতিষ্ঠাতাই নন, একজন সফল রাষ্ট্রপতি। তিনি রণাঙ্গণের মুক্তিযোদ্ধা, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষক।

বিশেষ অতিথির ভাষণে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদিকা হেলেন জেরিন খান বলেন, উন্নত চিকিৎসায় কারো জন্য বিমানের ফ্লাইট রেডি থাকে আর কারো জন্য শর্ত আরোপ করে ঘরে বসিয়ে রাখা হবে এটা কোন ধরণের গণতন্ত্র। তিনি বলেন, প্রাণঘাতী করোনা নিয়ে সরকার এখনো উদাসীন। সরকারের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রীর আবোল-তাবোল বক্তব্যে জনগণ হতাশ। 

সভাপতির ভাষনে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক সম্পাদিকা ও মহিলা দল ফ্রান্স শাখার সভানেত্রী মমতাজ আলো বলেন, চিকিৎসার সুযোগ যে কারো মৌলিক অধিকার। তাই কে কোথায় চিকিৎসা নেবে, কার কাছে যাবে, কোথায় যাবে তার কোন শর্ত থাকা কোনভাবেই উচিত নয়।

মমতাজ আলো আরো বলেন, জিয়াউর রহমানের নাম মুছে ফেলার জন্য সরকার সবকিছু করছে। কোনো আইন করেই শহীদ জিয়ার নাম বাংলাদেশের ইতিহাস থেকে মুছে ফেলা যাবে না। কারণ বাংলাদেশের মানুষ সত্যিকারের ইতিহাস জানে। জোর জবরদস্তি করে মানুষের মন থেকে কারো নাম মুছে ফেলা যায় না।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close