নিউইয়র্কের ব্রঙ্কসে ৯/১১ এর ভিকটিমদের স্মরণ বাংলাদেশী কমিউনিটির

নিউইয়র্ক থেকে সাখাওয়াত হোসেন সেলিম::

ভিকটিমদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় নিউইয়র্ক সহ যুক্তরাষ্ট্রে পালিত হয়েছে সেই ভয়াল ৯/১১ বার্ষিকী। গত ১১ই সেপ্টেম্বর শুক্রবার পূর্তি হলো ৯/১১ এ সন্ত্রাসী হামলার ১৯ বছর। এ উপলক্ষে নিউইয়র্ক সিটির ডাউন টাউনে ন্যাশনাল সেপ্টেম্বর একাদশ মেমরিয়্যাল অ্যান্ড মিউজিয়ামের কাছে গ্রাউন্ড জিরোতে স্মরণ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। একইসাথে পেনসিলভেনিয়া, পেন্টাগনে ধসে যাওয়া স্থলেও শোক-সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া বাংলাদেশী কমিউনিটির উদ্যোগেও নানা আয়োজনে দিবসটি পালিত হয়। খবর ইউএসএনিউজঅনলাইন’র।
এদিকে, গত ১১ সেপ্টেম্বর রাতে নিউইয়র্কে ব্রঙ্কসের স্টার্লিং-বাংলাবাজার এলাকায় ৯/১১ এর ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলা নিহতদের প্রতি মোমবাতি জ্বালিয়ে শোক প্রকাশ সহ বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশী কমিউনিটি। ৯/১১ এর সন্ত্রাসী হামলায় শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এ অনুষ্ঠান থেকে ৯/১১ এর সন্ত্রাসী হামলা ও হামলাকারীদের প্রতি তিব্র ঘৃণা প্রকাশ করা হয়। বিশ্বে যেন এমন বর্বরোচিত সন্ত্রাসী হামলার পূনরাবৃত্তি না ঘটতে পারে সেজন্য জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সকলকে একযোগে কাজ করার জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান হয়। বক্তারা সন্ত্রাসীদের নির্মূল করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, যারা ধর্মের নামে সন্ত্রাস করে তাদের আসলেই কোন ধর্ম নেই। সন্ত্রাসীরা কেবলই সন্ত্রাসী।
বাংলাবাজার বিজনেস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আব্দুল ওয়াহিদ চৌধুরী জাকির সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান লিংকনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাবাজার বিজনেস অ্যাসোসিয়েশনের সহ সভাপতি মোঃ খলিলুর রহমান ও বিলাল ইসলাম, বাংলাদেশী আমেরিকান পুলিশ এসোসিয়েশন -বাপা’র সাধারণ সম্পাদক লেফটেন্যান্ট এ কে এম আলম, বাংলাদেশী-আমেরিকান কমিউনিটি কাউন্সিলের সভাপতি মোহাম্মদ এন মজুমদার, আমেরিকান-বাংলাদেশী ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন ইনকের প্রেসিডেন্ট আবদুস শহীদ, বাঙালির চেতনা মঞ্চের চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাদশা, সিলেটের গোয়াইঘাট উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ, বাংলাদেশী কমিউনিটি অব নর্থ ব্রঙ্কসের সাধারণ সম্পাদক মনজুর চৌধুরী জগলুল, ব্রঙ্কস বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের সভাপতি এ ইসলাম মামুন, রংধনু সোসাইটি অব ব্রঙ্কস’র সভাপতি এমবি হোসেন তুষার, বাংলাবাজার বিজনেস অ্যাসোসিয়েশনের সহকারী সাধারণ সম্পাদক সুমন চৌধুরী, কোষাধ্যক্ষ সৈয়দ সরাফিন মোর্শেদ, কার্যকরী সদস্য কামরুজ্জামন বাবু, হৃদয়ে বাংলাদেশ’র সাধারণ সম্পাদক পল্লব সরকার, সিপিএ জাকির চৌধুরী প্রমুখ। ব্যবসায়ী, সাংস্কৃতিক কর্মী, সাংবাদিক সহ নানা শ্রেণী পেশার বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী উপস্থিত ছিলেন এ সস্মরণ অনুষ্ঠানে।
অনুষ্ঠানে আয়োজক সংগঠন বাংলাবাজার বিজনেস অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশী আমেরিকান পুলিশ এসোসিয়েশন-বাপা, বাংলাদেশী-আমেরিকান কমিউনিটি কাউন্সিল, ব্রঙ্কস বাংলাদেশ সোসাইটি, বাংলাদেশী কমিউনিটি অব নর্থ ব্রঙ্কস, ব্রঙ্কস বাংলাদেশ এসোসিয়েশন, আমেরিকান-বাংলাদেশী ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন ইনক, রংধনু সোসাইটি অব ব্রঙ্কস, হৃদয়ে বাংলাদেশ এর উপস্থিত কর্মকর্তাদের পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়।
অনুষ্ঠানে বাংলাবাজার জামে মসজিদের খতীব মাওলানা আবুল কাশেম মোহাম্মদ ইয়াহইয়া পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন। সিংগেরকাচ আলীয়া মাদ্রাসার সাবেক প্রিন্সিপাল মাওলানা একেএম আবদুন নুর দোয়া-মোনাজাত পরিচালনা করেন। এসময় ৯/১১ এ নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা সহ বিশ্ব মানবতার জন্য দোয়া করা হয়।
বাংলাদেশিসহ ভয়ংকর সেই সন্ত্রাসী হামলার শিকার হওয়া ব্যক্তিদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণের পর মোমবাতি প্রজ্জ্বলন ও বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।
বক্তারা বলেন, আমরা সকল নীরিহ, নিরপরাধ, জনগোষ্ঠী, ফায়ার ফাইটার, পুলিশ প্রশাসন সহ যারা জীবন দিয়েছেন তাদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।
উল্লেখ্য, ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বরের সন্ত্রাসী হামলায় টুইন টাওয়ার ধ্বংস হবার সাথে সাথে ৬ বাংলাদেশিসহ মোট ২৯৭৮ জনের প্রাণহানী ঘটে। নিহত বাংলাদেশিরা হলেন মুক্তাগাছার নূরল হক মিয়া এবং তার স্ত্রী মৌলভীবাজারের শাকিলা ইয়াসমীন, সুনামগঞ্জের সাব্বির আহমেদ, কুমিল্লার মো. শাহজাহান, সিলেটের সালাহ উদ্দিন চৌধুরী এবং নোয়াখালীর আবুল কে চৌধুরী।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close