নবীগঞ্জের মা-বাবাকে মারপিটের দায়ে অবাধ্য সন্তানকে ভ্রাম্যমান আদালতের ১৪ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড

উত্তম কুমার পাল হিমেল,নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ
টাকার জন্য বাবা-মাকে মারপিট ও বাড়ির জিনিসপত্র ভাঙচুর করার দায়ে অবাধ্য পুত্র নবীগঞ্জের ফারুক আহমেদকে ১৪ মাসের বিনাশ্রম কারাদ- দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। পিতার অভিযোগে মঙ্গলবার রাত ১০ টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এই আদেশ দেন নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মোঃ মহিউদ্দিন।
দন্ডাদেশপ্রাপ্ত ফারুক নবীগঞ্জ উপজেলার পানিউমদা ইউনিয়নের বড়চর গ্রামের আমির উল্যার পুত্র।
সুত্রে জানা যায়, টাকার জন্য প্রায়ই ফারুক আহমেদ তার মা-বাবা, ভাই, বোনকে শারিরীক, মানষিক অত্যাচার ও নির্যাতন করতো। তাদের কাছ টাকা থাকলে তা জোরপূর্বক চিনিয়ে নেয়। টাকা না দিলে ঘরের জিনিসপত্র, সম্পদ বিক্রি করাসহ অনেক অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। নবীগঞ্জ থানা পুলিশের সহায়তায় কয়েকবার মীমাংসার চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু কয়েকদিন পর পরই ফারুক মা-বাবার উপর শুরু করে দেয় অমানুষিক নির্যাতন। গত দুই দিন ধরে আবারো তার মা-বাবাকে মারপিট করে ঘর থেকে বের করে দেয় ফারুক। অবশেষে বাধ্য হয়ে তার পিতা আমির উল্লা নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর কাছে অভিযোগ দেন।
অভিযোগের প্রক্ষিতে বিষয়টি মীমাংসা করতে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ মহিউদ্দিন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ইজাজুর রহমান ও একদল পুলিশ নিয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে যান। সেখানে তাদের উপস্থিতিতেই পিতা-মাতাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও বারবার প্রহারের উদ্দেশে এগিয়ে যায় ফারুক। অবশেষে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ফারুককে দ-বিধি ১৮৬০ এর ৩৫৫ ধারা মোতাবেক ১৪ মাস বিনাশ্রম কারাদ- প্রদান করেন বলে তথ্যটি নিশ্চিত করেন নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মোঃ মহিউদ্দিন।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close