চীনের বিরুদ্ধে দীর্ঘ লড়াইয়ের জন্য আমরা প্রস্তুত : ভারতীয় সেনাবাহিনী

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় সেনা সংঘর্ষের পর থেকে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (এলএসি) চীনের সঙ্গে উত্তেজনা চলছে ভারতের। সীমান্তে চীনের সঙ্গে লড়াই যে দীর্ঘ হতে চলেছে, সে ইঙ্গিত অনেক আগেই মিলেছিল। একাধিকবার শীর্ষ পর্যায়ে বৈঠক হলেও প্যাংগং লেকের ফিঙ্গার পয়েন্ট এবং দেপসাং উপত্যকা থেকে সেনা সরাতে রাজি হয়নি চীন। ভারত ভূখণ্ডে অনুপ্রবেশের আগের অবস্থানে অর্থাৎ ৫ মে’র আগেকার অবস্থানে সরে যেতে নারাজ পিপলস লিবারেশন আর্মি।

এ পরিস্থিতিতে চীনাদের হটাতে দীর্ঘ লড়াইয়ের বিকল্প নেই ভারতের সামনে। তবে সমস্যা হলো সামনে শীতকাল। লাদাখের তাপমাত্রা শীতের সময় হিমাঙ্কের অনেকটা নিচে নেমে যায়। সেই প্রতিকূল পরিস্থিতিতে লড়াই করা তো দূরের কথা, সীমান্তে টহলদারিই করাই দুষ্কর হয়ে পড়ে। কিন্তু ভারতীয় সেনা সব রকম পরিস্থিতিতে লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত বলে মঙ্গলবার সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে প্রতিরক্ষাবিষয়ক সংসদীয় কমিটিকে জানানো হয়েছে।

চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াতের নেতৃত্বে ভারতীয় সেনাবাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা প্রতিরক্ষাবিষয়ক সংসদীয় কমিটিকে জানিয়েছেন, চীন সীমান্ত থেকে সেনা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া শেষ হতে সময় লাগবে। তবে যদি কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি হয়, তাহলে ভারতীয় সেনা পুরোপুরি প্রস্তুত। ভারতীয় সেনাবাহিনী চীনের বিরুদ্ধে দীর্ঘ লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে। এমনকি শীতকালের বিপজ্জনক পরিস্থিতিতেও আমরা লড়াইয়ের প্রস্তুতি সেরে রেখেছি।

সংসদীয় কমিটিতে সেনাবাহিনীর এই বক্তব্য নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ দিন তিনেক আগেই সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারভানে সেনা কমান্ডারদের সব রকমের যুদ্ধপ্রস্তুতি সেরে রাখার নির্দেশ দিয়েছিলেন। চীনের সঙ্গে দীর্ঘ লড়াইয়ে নামছে ভারত- এমটাই মনে করছেন অনেকে।

ভারতীয় সেনা কর্মকর্তাদের মতে, সেনা অপসারণ নিয়ে অহেতুক টালবাহানা করে ড্রাগন সেনা ভারতীয় সেনাবাহিনীর স্নায়ুর পরীক্ষা নিচ্ছে। প্রায় তিন মাসের বেশি সময় ধরে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতীয় এলাকায় ঘাঁটি গেড়ে বসে রয়েছে চীনারা। এলএসির সীমানাটাই বদলে দিতে চাইছে চীন।

সূত্র :— টাইমস অব ইন্ডিয়া, সংবাদ প্রতিদিন।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close