বকেয়া পরিশোধ করতে সিলেট সিক্সার্সকে আইনী নোটিশ

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

খেলোয়াড় ও কোচদের বেতন-ভাতা ঠিক সময় মতো দিতে ব্যর্থ হওয়ায় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অন্যতম ফ্র্যাঞ্চাইজি দল সিলেট সিক্সার্সকে আইনী নোটিশ দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

দলটিকে প্রথমে সব বকেয়া পরিশোধ করতে মৌখিকভাবে অনুরোধ করেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। কিন্তু তারপরও অনুরোধটি পূরণ করতে ব্যর্থ হওয়ার আইনি পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয় তারা।

চলতি সপ্তাহের শুরুতে যে সকল লিগে দেরিতে অর্থ প্রদান করে কিংবা পরিশোধ ঠিকঠাকভাবে করে না, তার একটি তালিকা জরিপ চালিয়ে খুঁজে পেয়েছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদের সংগঠন ফিকা (ফেডারেশন অফ ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশনস)। সারা বিশ্বের এমন ছয়টি ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টের মধ্যে বিপিএলও আছে বলে জানায় তারা।

পরবর্তীতে জানা যায়, বিপিএলের ২০১৮-১৯ মৌসুমের কমপক্ষে তিনজন খেলোয়াড় উইন্ডিজ উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান নিকোলাস পুরান, আফগানিস্তান ক্রিকেটার গুলবাদিন নায়েব, পাকিস্তানি পেসার সোহেল তানভীর এবং কোচ ওয়াকার ইউনিসের বকেয়া এখনও পরিশোধ করা হয়নি। তারা সবাই সে মৌসুমে সিলেট সিক্সার্সের হয়ে খেলেছেন।

এ ব্যাপারে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক বলেন, ‘এটি একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা এবং বিসিবি বিষয়টি সমাধানের উদ্যোগ নিয়েছে। তবে এটিও বিবেচনা করা উচিত যে সকল খেলোয়াড় এবং কোচ সরাসরি তাদের সঙ্গে চুক্তি করেছিলেন। তাই, এটি বোর্ডের দায় হিসাবে আসে না এবং বোর্ডের অর্থ প্রদান করারও কোনো কারণ নেই।’

‘আমরা ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকদের কাছে আইনী নোটিশ পাঠিয়েছি। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বকেয়া পরিশোধ করে দেওয়া উচিত। এই খেলোয়াড়রা ড্রাফটের বাইরে থেকে চুক্তি করেছিল তাই আমাদের এখানে খুব সামান্যই করার আছে। কিন্তু এ অভিযোগ আমাদের ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে এবং সে কারণেই আমরা বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে নিয়েছি। বিপিএল বিসিবির মালিকানাধীন একটি টুর্নামেন্ট। তাই বোর্ডকে কিছুটা অবস্থান নিতে হবে। – যোগ করে আরও বলেন বিসিবি পরিচালক মল্লিক।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close