সরকার শিক্ষিত বেকার তৈরি করতে চায় না :দিপু মনি

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেছেন উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে যত শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ ডিগ্রি নিচ্ছেন, চাকরির বাজারে তাদের আদৌ চাহিদা রয়েছে কিনা একটু ভেবে দেখতে হবে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের আয়োজনে এবারের বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে বুধবার এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

মন্ত্রী দীপু মনি বলেন, “বর্তমানে আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থায় যে পরিমাণ শিক্ষার্থী অনার্স-মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করছে চাকরির বাজারে সে পরিমাণ অনার্স ও মাস্টার্সের চাহিদা রয়েছে কিনা তা ভেবে দেখার প্রয়োজন রয়েছে।

“যারা বিভিন্ন বিষয়ে অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করছেন, তাদের অনেকেই চাহিদা অনুযায়ী চাকরি পাচ্ছেন না এবং কোনো রকমের টেকনিক্যাল শিক্ষা না থাকায় তারা বেকার থেকে যাচ্ছেন। সরকার আর এই রকমের শিক্ষিত বেকার তৈরি করতে চায় না। বিষয়টি বিবেচনায় সরকার শিক্ষার সর্বোচ্চ অগ্রাধিকারে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষাকে বেশি প্রাধান্য দিয়ে সামগ্রিক শিক্ষা ব্যবস্থা ঢেলে সাজিয়েছে।”

তিনি আরও বলেন, “আমরা এখন চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের যুগে অবস্থান করছি। এর আগের তিনটি শিল্প বিপ্লবের আমরা কোনো সুযোগ নিতে পারেনি।

আমরা চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের সর্বোচ্চ সুবিধা নিতে চাই। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের ফলে দেশ ও আন্তর্জাতিক শ্রমবাজার দ্রুত পরিবর্তিত হচ্ছে। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের ফলে পরিবর্তিত শ্রমবাজারে চাহিদা অনুযায়ী প্রযুক্তি ও দক্ষতার সমন্বয় ঘটিয়ে আমাদের বিপুল জনসংখ্যাকে জনসম্পদে রূপান্তরিত করতে হবে, এ লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে।”

দক্ষ মানব সম্পদের চেয়ে কোনো সম্পদই বড় নয় উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী দক্ষ মানব সম্পদ তৈরিতে সরকারের নেওয়া পদক্ষেপগুলো তুলে ধরেন।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আহমদ কায়কাউসের সভাপতিত্বে সভায় এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক জুয়েনা আজিজ, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব আমিনুল ইসলাম খান, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান সচিব আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন, যুব ও ক্রীড়া সচিব আকতার হোসেন, জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান হাসিবুল আলম, এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের বাংলাদেশ প্রতিনিধি মনমোহন প্রকাশ, আইএলওর বাংলাদেশ প্রতিনিধি টওমো পুটিয়ানান, গণস্বাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধুরী বক্তব্য দেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close