গোলাপগঞ্জে পশুর হাট বসানো নিয়ে জটিলতা

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি:

সিলেটের গোলাপগঞ্জে মীরগঞ্জ মোজাহিরুল ইসলাম দাখিল মাদ্রাসা মাঠে পশুর হাট বসানো নিয়ে দেখা দিয়েছে জটিলতা। গত বছরের ন্যায় এবার মাদ্রাসায় মাঠে যাতে পশুর হাট না বসে এজন্য একটি মহল বিভিন্ন স্থানে লবিং শুরু করে দিয়েছে বলে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ জানায়।
জানা যায়, ১৯৫৯ সাল থেকে গোলাপগঞ্জের ভাদেশ্বর ইউনিয়নের কুশিয়ারা নদীর তীরে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি বিদ্যাপীঠ মীরগঞ্জ মোজাহিরুল ইসলাম দাখিল মাদ্রাসা পরিবেশ ও শিক্ষার মানোন্নয়নে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে শিক্ষার আলো ছড়াচ্ছে।
২০১৯ সালে এই মাদ্রাসাটি উপজেলার মাঝে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্টান হওয়ার গৌরব অর্জন করে। এছাড়াও এই মাদ্রাসার হিফজ শাখায় ২৮ জন গরীব শিক্ষার্থী বডিং এ থেকে লেখাপড়া করেন। তাদের থাকা খাওয়ার ভরণপোষণ পশুর হাটের লাভের টাকা ও বিভিন্ন ব্যক্তিদের অনুদানে চলে। এসব কথা বিবেচনা করে মাদ্রাসার স্বার্থে মাদ্রাসার মাঠে পশুর হাট বসানোর জন্য এলাকাবাসী উপজেলা প্রশাসনের প্রতি দাবি জানিয়েছেন।
ফতেহপুর, শেখপুরসহ আশেপাশের গ্রামের একাধিক বিশিষ্ট মুরব্বিরা জানান, বিগত ৩৫ বছর ধরে মীরগঞ্জ মাদ্রাসা মাঠে পশুর হাট বসে আসছে। আর এই হাটের লাভাংশ মাদরাসা ও মসজিদের কাজে ব্যবহার হয়ে আসছে। এবারো মাদ্রাসার স্বার্থে যাতে পশুর হাটটি বসে এজন্য তিনি প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন।
মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সয়েফ উদ্দিন বলেন, প্রতি বছরই কুশিয়ার অঞ্চলের মানুষের সুবিধার্তে মীরগঞ্জ মাদ্রাসায় পশুর হাট বসে। এবার একটি পক্ষ মাদ্রাসায় যাতে হাট না বসে এজন্য ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। কুশিয়ারা বাসীর সুবিধা চিন্তা করে মীরগঞ্জ মাদ্রাসা মাঠে এবারো পশুর হাট বসানোর দাবি জানাচ্ছি।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মামুনুর রহমান জানান, এই পশুর মাঠের ব্যপারে এখনো কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close