রহস্যজনক, গাড়ির ভেতরেই গলায় ফাঁস দিয়ে তরুণের আত্মহত্যা!

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

ভারতের মুম্বাইয়ের পোয়াই নামক এলাকায় এক রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। রাস্তায় পার্কিং জোনে দাঁড়িয়ে থাকা গাড়ি থেকে এক তরুণের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার। মৃতের নাম বিনীত সিং। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে তিনি আত্মহত্যা করেছেন।

ভারতের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, বুধবার বাড়িতে দিল্লি যাচ্ছেন বলে বেরিয়েছিলেন তিনি। জানিয়েছিলেন সেখানে ব্যবসার কাজ রয়েছে তার। তারপর থেকেই তার কোনো খোঁজ মিলছিল না। শুক্রবার সকালে গাড়ির ভেতর স্থানীয়রাই প্রথম দেহ দেখতে পান। তারপরেই সেখান থেকে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। ঘটনাস্থল থেকে কোনো সুইসাইড নোট উদ্ধার হয়নি। পোয়াই পুলিশ একটি দুর্ঘটনায় মৃত্যুর মামলা রুজু করেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, গাড়িতে লাশ উদ্ধারের সময় তার শরীর থেকে মদের গন্ধ বের হচ্ছিল। অর্থাৎ মদ্যপ অবস্থাতেই আত্মহত্যা করেন বিনীত। গাড়ির সামনে যাত্রীর সিটের দরজার হ্যান্ডেলের সঙ্গে দড়ি লাগানো ছিল। বিনীত বসেছিলেন পেছনের সিটে ড্রাইভারের সিটের পেছনে। তার পা ড্রাইভারের সিটের উপর তোলা ছিল। সেখানে শুয়েই জোর করে নিজেই নিজের শ্বাসরোধ করেন। ভিতর থেকে গাড়ি বন্ধ ছিল। তবে আত্মহত্যার কারণ এখনো জানা যায়নি।

স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, বিনীত সিং একজন ব্যবসায়ী। লকডাউনের ফলে ব্যবসায় ব্যাপক মন্দার শিকার হয়েছিলেন তিনি। বেশ কয়েকটি ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েছিলেন তিনি। পাশাপাশি মদে আসক্ত ছিলেন। পোয়াই পুলিশ স্টেশনের সিনিয়র ইন্সপেকটর সুধাকর কাম্বলে জানতে পেরেছেন এই তথ্যগুলো। বিনীতের বাড়িতে স্ত্রী ও তার মেয়ে রয়েছেন। মোয়াইয়ের পালাজ্জো সিএইচএস এলাকাতেই তিনি থাকেন। তার স্ত্রী জানিয়েছেন দিল্লিতে কাজের জন্য যাচ্ছেন বলে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন তিনি। তারপর থেকেই আর কোনো যোগাযোগ হয়নি। ফোনেও পাওয়া যায়নি তাকে।

শুক্রবার সকাল ১০টা নাগাদ এক স্থানীয় ওই এলাকা দিয়ে যাওয়ার সময় গাড়ির ভেতর দেহ দেখতে পান তিনি। ঘটনাস্থল পোয়াইয়ের এসএম শেট্টি স্কুলের কাছে। পার্ক করা গাড়ির ভেতর একটি লাশ পড়ে রয়েছে দেখতে পান ওই ব্যক্তি। তখনই স্থানীয়রা পোয়াই পুলিশকে খবর পাঠায়। সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে এসে পুলিশ বিনীতকে রাজাওয়ারি হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু তার অনেক আগেই মৃত্যু হয়েছে বলে জানান চিকিৎসকেরা।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close