‘দ্যা ফিনিক্স’র ‘ক্রিয়েটিভ রাইটিং’ বিষয়ক আলোচনা

ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য বিষয়ক প্রকাশনা ‘দ্যা ফিনিক্স’ এর উদ্যোগে ‘ক্রিয়েটিভ রাইটিং’ বিষয়ক ভার্চুয়াল আলোচনায় কবি ও অনুবাদক, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম বলেছেন, মানুষের মন মাত্রই সৃজন চর্চায় উন্মুখ থাকে। প্রয়োজন শুধু যথাযথ পথ অবলম্বন। লেখালেখির জন্য পড়াশোনার কোনো বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, লেখক হতে গেলে আগে একনিষ্ট পাঠক হতে হয়। কোনো নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে লেখক হওয়া যায় না। সবার আগে জীবনকে উপলব্দি করতে হবে। জীবনের চারপাশকে না জানলে লেখালেখি করা যায় না।

ড. শফিক সৃজনশীল লেখালেখিতে আগ্রহীদের উদ্দেশ্যে বলেন, লেখালেখি করতে হলে অনুসন্ধিৎসু হতে হবে। জ্ঞানের সকল শাখার প্রতি আগ্রহ থাকতে হবে। আগ্রহ ছাড়া কোনো সৃষ্টিই সম্ভব না।

তিনি বলেন, একটি লেখা মানুষকে বদলাতে পারে, নতুন একটি পৃথিবী সৃষ্টি করতে পারে। লেখালেখিতে আগ্রহীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, একজন লেখককে আগে নিজেকে সারপ্রাইজ দিতে হবে, তারপর পাঠককে।

গত ২৬ জুন, শুক্রবার রাতে জুম’র মাধ্যমে এ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের সমন্বয়ক, ফিনিক্সের সহকারী সম্পাদক, নওরীন কলির সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, দ্যা ফিনিক্স’র সম্পাদক, সহকারী অধ্যাপক, লেখক ও সংগঠক প্রণবকান্তি দেব।

আলোচনায় দেশের বিভিন্ন প্রান্তের পাশাপাশি দেশের বাইরে থেকেও আগ্রহীরা অংশ নেন। আলোচনা উপস্থাপনের পর প্রশ্ন-উত্তর ও মতামত প্রদান পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশ গ্রহণ করেন ব্র্যাক এর শিক্ষা বিশেষজ্ঞ মাসুম বিল্লাহ, নেপালের শিক্ষক এবং লেখক গোকুল শর্মা, চট্রগ্রাম থেকে ইউ এস স্টেট এলমনাই এবং ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মুহিব উল্লাহ, চট্রগ্রামের কলেজ শিক্ষক কৃষ্ণা দত্ত, ঢাকা থেকে নাইমা ইসলাম লিনা, সিলেট এর শিক্ষার্থী মো. মোশাররফ হোসেন প্রমুখ।

এ সময় তারা, আমাদের মুলধারার শিক্ষা ব্যবস্থায় সৃজনশীল লেখালেখির বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করার প্রস্তাব করেন। পুরো অনুষ্ঠানে সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন, দ্যা ফিনিক্স এর সহকারী সম্পাদক সুলতান আহমদ।

— প্রেস বিজ্ঞপ্তি ।।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close