চীনের দাবি, সীমান্তে সংঘর্ষে উসকানি দিয়েছে ভারত

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

সীমান্তে সংঘর্ষ নিয়ে ভারতের ওপর সব দায় চাপিয়েছে চীন। দেশটির বিরুদ্ধে সীমান্তে সংঘর্ষে একতরফাভাবে উসকানি দেয়ার অভিযোগ এনেছে বেইজিং। চীন বলছে, সীমান্তে শান্তি বজায় রাখতে দুই দেশের মধ্যে যে চুক্তি হয়েছিল, তা লঙ্ঘন করেছে ভারত। ১৫ জুন রাতে ভারতীয় সেনাবাহিনী প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা লঙ্ঘন করে চীনা ভূখণ্ডে ঢুকে পড়েছে। খবর-রয়টার্স।

বুধবার দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এ কথা জানানো হয়।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম বলছে, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা লঙ্ঘন করে ভারতীয় ভূখণ্ডে প্রবেশ নিয়ে ১৫ জুন লাদাখে চীনা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে ভারতীয় জওয়ানদের। এতে ২০ ভারতীয় সেনাবাহিনী নিহহ হন। তবে চীনের পক্ষ থেকে হতাহতের বিস্তারিত জানানো হয়নি।

কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, চীনা প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সিনিয়র কর্নেল উ কিয়া‌নএক বিবৃতিতে বলেন, গালওয়ানে চীনের সার্বভৌম অধিকার রয়েছে। বহু বছর ধরে সেখানে নজরদারি চালিয়ে আসছে চিনা বাহিনী। এ বছর এপ্রিল থেকে সেখানে একতরফাভাবে নির্মাণকাজ শুরু করে ভারতীয় সেনা, একাধিকবার তার প্রতিবাদ করে চীন।

বেইজিংয়ের দাবি, ৬ মে সকালে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে চীনা ভূখণ্ডে কাঠামো নির্মাণ শুরু করে ভারত। চিনা বাহিনীকে নজরদারি চালাতে বাধা দেয় তারা। তাতে সীমান্তে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। বিষয়টি নিয়ে ৬ জুন দু’দেশের সামরিক স্তরে বৈঠক হয়। তাতে গালওয়ান উপত্যকায় নজরদারি না চালানো এবং কাঠামো নির্মাণ না করায় সম্মত হয় ভারত। সেখান থেকে দু’পক্ষই সেনা সরাতে রাজি হয়। কিন্তু ১৫ জুন সন্ধ্যায় প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা লঙ্ঘন করে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী।

প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতীয় জওয়ানরা চীনের এলাকায় ঢুকে পড়লে চীনা বাহিনী তাদের সঙ্গে সমঝোতায় আসার চেষ্টা করে বলে দাবি করে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close