ছাতকের গোবিন্দগঞ্জে ডিবি পুলিশের অভিযানে ভারতীয় মদসহ কথিত সম্পাদক ফকির হাসান ফের গ্রেফতার

ছাতক প্রতিনিধি::

সুনামগঞ্জের ছাতকে ডিবি পুলিশের অভিযানে ফকির মোহাম্মদ হাসান নামে অনলাইন নিউজ পোর্টালের এক সম্পাদককে ৩ বোতল ভারতীয় অফিসার্স চয়েজ মদসহ গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে সুনামগঞ্জ ডিবি পুলিশের এস আই উস্তার, এস আই মো. আলিম উদ্দিন ও সঙ্গীয় ফোর্স উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ পয়েন্ট থেকে মাদক সেবন অবস্থায় ৩ বোতল ভারতীয় অফিসার্স চয়েজ মদসহ তাকে গ্রেফতার করে ছাতক থানায় হস্তান্তর করা হয়। দুপুরে ডিবি পুলিশ বাদি হয়ে ২০১৮ সালের মাদক নিয়ন্ত্রন আইনের ৩৬(১) স্মরনী ২৫ ততসহ ২৫বি ধারায় এ মামলাটি দায়ের করা হয়। যার মামলা নং-২১,তারিখ ২৩/০৬/২০২০ইং।
গ্রেফতাকৃত ফকির মোহাম্মদ হাসান ছাতক উপজেলার সিংগুয়া গ্রামের শাহ মোঃ ফকির ওরফে কালার ছেলে। কিছুদিন পূর্বে একটি চুরির মামলায় জেল কেটে এক মাসের ভেতরে আবারো ৩ বোতল মদসহ গ্রেফতার হলো।
ছাতক থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ফকির মোহাম্মদ হাসানের বিরুদ্ধে ছাতক থানায় ৩টি ও জগন্নাথপুর থানা একটি মামলা রয়েছে। তার বিরুদ্ধে জগন্নাথপুর থানায় ২০১২ সালের ১ ফেব্রুয়ারী ৪৫৭/৩৮২/৫০৬ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। যার মামলা নং-০৩ ,ছাতক থানায় ২০১৯ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারী ১৯৭৪ সালের ধারার বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা। যার মামলা নং-২২। চলতি বছরের ২৮ মে ২০১৮ সালের মাদক নিয়ন্ত্রন আইনের ৩৬(১) ধারার ২৫, ছাতক থানায় মামলা নং-২১ এবং মঙ্গলবার সন্ধ্যা ডিবি পুলিশ বাদি হয়ে ছাতক থানায় মাকদদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে আরো একটি মামলা দায়ের করা হয়। যার মামলা নং -২১। ফকির মোহাম্মদ হাসান নিজেকে একজন অনলাইন নিউজ পোার্টলের সম্পাদক পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গাতে চাদাঁবাজি, মাদক সেবন ও বিক্রি করে আসছিল বলে জানা গেছে। সে সহজ সরল মানুষজনের দূর্বলতার সুযোগ খোঁজে ব্লেকমেইল করে হাতিয়ে নিত মোটা অংকের টাকা এমন অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।
এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি কাজী মোক্তাদির হোসেন গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোস্তফা কামাল জানান, মাদকদ্রুব্য সেবন ও বিক্রি আইনগত দন্ডনীয় অপরাধ। তাই সুনামগঞ্জের সুযোগ্য পুলিশ সুপারের নির্দেশে মাদক সেবন ও বিক্রিতে পুলিশ জিরো ট্রলারেন্স বলে উল্লেখ করেন। এই সমস্ত অপরাধ দমনে ছাতক থানা পুলিশের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close