লাদাখ সীমান্তে চীনের সেনা কমান্ডারের মৃত্যু

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

লাদাখ সীমান্তে গত ১৫ জুন রাতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে চীনা সেনাবাহিনীর একজন কমান্ডিং অফিসারের মৃত্যুর ঘটনা স্বীকার করেছে চীনের কর্তৃপক্ষ।

গালোয়ান উপত্যকায় ওই সংঘাতের প্রায় এক সপ্তাহ পর আজ সোমবার চীনের সেনা সূত্রের বরাত দিয়ে এই খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

এর আগে সংঘর্ষের পর থেকেই ভারতের ২০ জন সেনা সদস্য নিহতের কথা জানিয়েছে ভারত। তবে চীনের পক্ষ থেকে কোনো হতাহতের খবর প্রকাশ করা হয়নি।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, গালওয়ানে ভারত ও চীনের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষসহ বিতর্কিত নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে ফের ভারত ও চীনের শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তারা বৈঠকে বসবেন।

ভারতীয় সেনাবাহিনী সূত্রের বরাত দিয়ে এনডিটিভি জানিয়েছে, লেফটেন্যান্ট জেনারেল পর্যায়ের ওই বৈঠকে পূর্ব লাদাখের কাছে চীন সীমান্তের দিকে চুশুলের মোলদোয় অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকে গালওয়ান এবং ফিঙ্গার্স এলাকা নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি অন্য সমস্ত ইস্যু নিয়েও আলোচনা করা হবে।

এর আগে গত ৬ জুন এমন আরেকটি বৈঠক হয়। সেই বৈঠকেই ঠিক হয়, ভারত-চীন সীমান্তের উত্তেজনাকর পরিস্থিতিকে নিয়ন্ত্রণে আনতে সেখান থেকে চীন তাদের সেনা প্রত্যাহার করবে। কিন্তু তারপরে দেখা যায় যে, চীন কথায় এক আর কাজে আরেক করছে। ১৫ জুন ফের ভারত ও চীনের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়, যাতে প্রাণ যায় ২০ জন ভারতীয় সেনার ও আহত হন কমপক্ষে ৭৬ জন।

উল্লেখ্য, ১৫ জুনের ওই সংঘাতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর ২০ জনের প্রাণহানীর পাশাপাশি অন্তত ৭৬ জন আহত হন। এরপর থেকে গালওয়ান উপত্যকা, গোগরা হট স্প্রিং, প্যাংগং লেকের উত্তরাংশের ফিঙ্গার এরিয়াসহ লাদাখের বিভিন্ন এলাকায় দুই দেশেরই সেনা তৎপরতা বেড়েছে।

— সূত্র ::— এনডিটিভি

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close