সিলেটে স্ত্রীর ফোনে সুইসাইডের এসএমএস দিয়ে স্বামীর আত্মহত্যা

মাধবপুর প্রতিনিধি::

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার নোয়াপাড়া ইউনিয়নস্থ ইটাখোলা গ্রামের হেবজু মাস্টারের ছেলে সাইফুর রহমান মুর্শেদ (৩০) স্ত্রীর মুঠোফোনে সুইসাইড এসএমএস দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

সোমবার (৮ই জুন) দুপুরে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ৬ই জুন সাইফুর রহমান তার স্ত্রীর কাছে মুঠোফোনে সুইসাইডের এস.এম.এস করেন। পরদিন তার স্ত্রী বাবার বাড়ী খরকী গ্রাম থেকে এসে ঘরের ভিতরে ফাঁসিতে ঝুলানো লাশ দেখে এবং তার সুইসাইড নোট নিয়ে কাউকে কিছু না জানিয়ে তিনি আবার চলে যান।

আজ (৮ই জুন) সিলেটে তার বোনের অপারেশনের কারণে তাকে খোঁজ করলে স্বজনরা বন্ধ ঘরের মধ্যে ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায়। পরে এলাকার লোকজন, স্থানীয় মেম্বার-চেয়ারম্যান সবাই এসে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে এবং জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্ত্রী হাসিনা আক্তার হাসিকে আটক করে।

এ ব্যপারে সাইফুর রহমানের ভাই সফিকুর রহমান শামীম বলেন, ‘আমার ভাইয়ের কারো সাথে ঝগড়াঝাঁটি ছিল না। তার স্ত্রীর সাথে তেমন বনিবনা ছিল না। স্ত্রী চাকরির সুবাদে বাপের বাড়ি খরকীতেই থাকতো।’

এদিকে তার স্ত্রী হাসিনা আক্তার হাসিকে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, ‘আমার স্বামী নেশায় আসক্ত ছিল। প্রায়ই মোবাইলে সুইসাইডের এসএমএস পাঠাতো। কিন্তু তার কোন সাড়া না পেয়ে গতকাল দেখতে এসেছিলাম। লাশ দেখে ভয় পেয়ে কাউকে না জানিয়ে চলে যাই।’

মাধবপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) গোলাম দস্তগীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত রিপোর্টের জন্য হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close