গর্ভপাতসহ বিভিন্ন অভিযোগে র‌্যাব কর্মকর্তার বিরুদ্ধে স্ত্রীর মামলা

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

গর্ভপাত (ভ্রূণ হত্যা), নির্যাতন, যৌতুকের অভিযোগ তুলে র‌্যাব কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন তার স্ত্রী। বৃহস্পতিবার রাতে রমনা থানায় এ মামলা (নম্বর-২) দায়ের করা হয়। মামলার মূল আসামি করা হয়েছে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) নাজমুস সাকিব (৩৪)। তিনি বর্তমানে র‌্যাবে কর্মরত।

পুলিশ সূত্র জানায়, অভিযোগে স্ত্রী ইশরাত রহমান (২২)  তার স্বামী নাজমুস সাকিব ছাড়াও শ্বশুর সফিউল্লাহ তালুকদার, শাশুড়ি খালেদা সুলতানাকে অভিযুক্ত করেছেন।

এ সম্পর্কে রমনা মডেল থানার ওসি মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘স্ত্রী মামলা করেছে। মারধর যৌতুকের দাবি, গর্ভপাতের বিষয় উল্লেখ করা হয়েছে। যেহেতু মামলা রুজু হয়েছে এ বিষয়ে আমরা পদক্ষেপ নেব। অভিযুক্ত এএসপি নাজমুস সাকিব র‌্যাব সদর দপ্তরে কর্মরত আছেন।’

অভিযোগে বলা হয়, নাজমুস সাকিবের সঙ্গে ইশরাত রহমানের ২০১৭ সালে মার্চে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে শ্বশুর সফিউল্লাহ তালুকদার (৬০), শাশুড়ি খালেদা সুলতানা (৫২) তাদের যৌতুকলোভী এবং অত্যাচারী মনোভাব প্রকাশ করতে থাকেন। 

আসামিরা বিভিন্ন সময় ইশরাতকে তার বাবার কাছ থেকে নগদ টাকা এনে দিতে চাপ দিতে থাকেন। টাকা না দিলে সব আসামি মিলে তাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতেন। নির্যাতনের ভয়ে তিনি তার বাবার কাছ থেকে প্রায়ই নগদ টাকা এনে আসামিদের দিতেন।

এছাড়াও, ইশরাত গর্ভবতী হলে তার ওপর আসামিদের নির্যাতনের মাত্রা আরো বেড়ে যায়। তারা তালাকের ভয় দেখিয়ে ইশরাতকে গর্ভপাত করানোর জন্য চাপ দিতে থাকেন। ইশরাত রাজি না হলে তার ওপর নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে যায়। এক পর্যায়ে ২০১৯ সালের জুলাই মাসে ইশরাতের স্বামী নাজমুস সাকিব তালাকের ভয় দেখিয়ে গর্ভপাত করান।

— সূত্র ::— কালের কণ্ঠ ।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close