দক্ষিণ সুরমায় বিধবার পরিবারকে এক ঘর করে রাখার হুমকি

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

সিলেটের দক্ষিণ সুরমা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দায়েরকৃত মামলার আসামীরা মামলা তুলে নিতে নানা ধরণের হুমকি দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন উপজেলার লামাপাড়া গ্রামের বিধবা রাফিয়া বেগম।

তার পরিবারকে এক ঘরে অবরুদ্ধ করে রাখার পাশাপাশি তার স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া দুই কন্যাকে অপহরণের হুমকিসহ পরিবারের সদস্যদের প্রাণনাশের হুমকিও দিচ্ছে তারা। এজন্য তিনি দক্ষিণ সুরমা থানায় আজ বৃহস্পতিবার একটি সাধারণ ডায়েরিও (জিডি নং-১২৬) করেছেন।

জিডিতে তিনি উল্লেখ করেন, লামাপাড়া গ্রামের মৃত বজলু মিয়ার ছেলে নজরুল ইসলাম নজু (৪০), মৃত মজিদ মুল্লাহর ছেলে আলা মিয়া (৫২), দুদু মিয়া (৫৩) ও রইছ মিয়া (৪২), মৃত জহুর আলীর ছেলে নিজাম মিয়া (৪৫) ও আলা উদ্দিন (৪৮), মৃত বারীর ছেলে কাদির মিয়া (৫৫), আমরু মিয়ার ছেলে দিলোয়ার মিয়া (৪০), কাদির মিয়ার ছেলে সামিম মিয়া (৩০), শাহেদ মিয়া (৩২) গংরা গত ২৯ মে বিকেলে তার বাড়িতে গিয়ে ২২ মে তাদের কয়েকজনের বিরুদ্ধে থানায় দায়েরকৃত মামলা তুলে নিতে বলেন। এর আগেও তারা নানাভাবে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকি ধমকিও দিয়ে আসছিলেন।’

তিনি আরও উল্লেখ করেন, ‘অশালীন আচরণের কারণে তিনি বাদি হয়ে দক্ষিণ সুরমা থানায় গত ২২ মে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ১৫। এই মামলাটি তদন্তাধিন রয়েছে। এরই মাঝে মামলা তুলে না নেওয়ায় ২৯ মে বিকেলে বিবাদীরা তার বাড়ির আঙ্গিনায় এসে তাকে মামলা তুলে না নেওয়ার জন্য গালিগালাজ করতে থাকে। এসময় তারা তাকে এক ঘরে করে বাহিরে বের না হওয়ার জন্য হুশিয়ারিও করেন। জিডিতে তিনি আরও উল্লেখ করেন, বাহিরে বের হলে তার দুই মেয়েকে অপহরণ করা হবে এবং তাদের প্রাণে হত্যা করা হবে। এরপর থেকেই ঘরে অবরুদ্ধ অবস্থায় তাদের দিন কাটছে বলে উল্লেখ করেন তিনি। তিনি তার জান-মালের নিরাপত্তায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের দারস্ত হয়েছেন বলেও ডায়েরিতে উল্লেখ করেন।

দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খায়রুল ফজল জানান, ‘ওই নারী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। অভিযোগের বিষয়ে তদন্তের পর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।’

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close