বাংলাদেশে আগামী কিছুদিন করোনা পরিস্থিতি কঠিনের শঙ্কা কাদেরের

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

বাংলাদেশে আগামী কিছুদিন করোনা পরিস্থিতি আরও কঠিন হবে বলে আশঙ্কা করছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, এরই মধ্যে বিশ্বে আক্রান্ত ২১৫ দেশ ও অঞ্চলের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থানের আরও অবনতি হয়েছে। বাংলাদেশের অবস্থান বর্তমানে ২৩তম।

ওবায়দুল কাদের বলেন, করোনা সংক্রমণ থেকে ছোট-বড়, ধনী গরিব কেউ রেহাই পাচ্ছেন না। প্রাণঘাতী এই ভাইরাস থেকে রেহাই পেতে প্রতিরোধের জন্য সচেতনার কোনো বিকল্প নেই। সামনের কঠিন সময়ে আসুন আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে সম্মিলত প্রতিরোধ গড়ে তুলি।

বিশেষজ্ঞদের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, আগামী কিছুদিন বাংলাদেশে পরিস্থিতি আরও কঠিন হবে বলে বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। ধৈর্য্যহারা না হয়ে সাবধানতা অবলম্বন করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান করছি।

মঙ্গলবার সংসদ ভবনস্থ সরকারি বাসভবন থেকে এক ভিডিওবার্তায় ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি অধিকাংশ মানুষের মাঝে ধৈর্য্য ও শৃঙ্খলার ঘাটতি দেখা যাচ্ছে। অনেকই স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঘরে থাকলেও, অনেকই এসব কানে তুলছেন না, স্বাভাবিক সময়ের মতো ঘুরা ফেরা করছেন।  হাটে বাজারে ভিড়ে সমাগমে অংশ নিচ্ছেন। স্বাস্থ্যবিধি ও সমাজিক দুরত্ব মেনে চলছেন না। এই উদাসীনতায় নিজে ও আশপাশের সকলের জন্য ভয়াবহ বিপদ ডেকে আনছেন। অবনতি ঘটাচ্ছেন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের উদ্যোগে। এতে শহরে-গ্রামে সর্বত্রই সংক্রমণ ও মৃত্যু বাড়ছে। কাজেই দয়া করে আসুন সবাই সচেতন হই। স্বাস্থ্যবিধি ও সমাজিক দুরত্ব মেনে চলি। কারণ প্রতিকার বা সমাধান নয়, এই ভাইরাস থেকে বাঁচতে ও সুরক্ষা পেতে প্রতিরোধের কোন বিকল্প নাই। আপনার সামান্যতম শৈথিল্য নিজ পরিবার ও পার্শ্ববর্তী সকলের জন্য ভয়াবহ বিপদ ডেকে আনতে পারে।

ঈদের সময় শহর ও গ্রামে অবাধ বিচরণ করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়িয়ে দিয়েছে উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন,  যারা ফ্রন্টলাইনে যুদ্ধ করছেন, তাদেরও মনোবল না হারিয়ে সাহসিকতার সঙ্গে লড়াইয়ে আহ্বান জানাচ্ছি। আপনারা মনে সাহস রাখুন, ধৈর্য্য দরুন। সংকট ও দুর্যোগের সাহসী নেতৃত্ব শেখ হাসিনা ও তার সরকার আপনাদের পাশে আছে। জনগণের সহযোগিতা নিয়ে আমরা এই অনিশ্চয়তার এই আধার কাটিয়ে উঠবো। 

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close