কানাইঘাটে কুপিয়ে যুবকের পা কেটে ফেললো দুর্বৃত্তরা

কানাইঘাট প্রতিনিধি::

কানাইঘাটের লক্ষীপ্রসাদ পূর্ব ইউনিয়নে কয়ছর আহমদ (৩৫) নামে এক যুবককে নৃশংসভাবে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে এক পা বিচ্ছিন্ন ও আরেক পায়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে গুরুতর জখম ও হাতের আঙ্গুল কর্তন করার খবর পাওয়া গেছে।

আজ শনিবার (২২ মে) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে দনা গ্রামের গর্দনা মাদ্রাসা সংলগ্ন রাস্তার উপরে এ ঘটনাটি ঘটে।

গুরুতর আহত কয়ছর আহমদকে বাম পায়ের হাটুর নিচে বিচ্ছিন্ন অবস্থায় আশংকাজনকভাবে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এমন নৃশংস ঘটনায় এলাকায় জনমনে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

আহতের আত্মীয় স্বজনরা জানান, পূর্ব বিরোধ ও সীমান্ত এলাকায় চোরাচালান কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করায় দনা রাতাছড়া গ্রামের আজির উদ্দিনের ছেলে কয়ছর আহমদের উপর স্থানীয় এরালীগুল গ্রামের শাহনুরের ছেলে বিলাল, দিলু, হেলাল, কাওছারসহ আরো কয়েজন আজ শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে আটগ্রাম বাজার থেকে ঈদের কেনাকাটা শেষে বাড়ি ফেরার পথে গর্দনা মাদ্রাসার পাশে স্বশস্ত্র অবস্থায় ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। হামলাকারীরা কয়ছরের বাম পায়ের হাঁটুর নিচে উপর্যুপরি কুপিয়ে পা বিচ্ছিন্ন করে ফেলে এবং ডান পায়ের হাঁটুতে গুরুতর জখম করে। এছাড়া হামলাকারীরা পায়ের পাশাপাশি এক হাতের আঙ্গুল কর্তন করে মৃত ভেবে কয়ছরকে রাস্তায় ফেলে চলে যায়।

পরে আশংকাজনক অবস্থায় আহত কয়ছরকে উদ্ধার করে স্থানীয় লোকজন ও আত্মীয় স্বজনরা তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। তার অবস্থা আশংকাজনক বলে পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন।

এদিকে এমন নৃশংস ঘটনার খবর পেয়ে কানাইঘাট থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যান। পুলিশ কয়ছরের উপর হামলাকারীদের আটক করতে এলাকায় অভিযান চালাচ্ছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close