ছাতকে জনতার হাতে আটক চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে মামলা

ছাতক প্রতিনিধি::

ছাতকের স্থানীয় জনতার হাতে আটক চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পিয়াইন নদীতে চলন্ত নৌ-যান থেকে চাঁদাবাজির সময় স্থানীয় জনতা ধাওয়া করে ৩ চাঁদাবাজকে আটকের পর থানা পুলিশের কাছে সৌপর্দ করে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের জামুরা গ্রাম সংলগ্ন পিয়াইন নদী থেকে চাঁদাবাজদের আটক করা হয়।

আটকৃত চাঁদাবাজরা হল সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার তেলিখাল ইউনিয়নের চাটিবহর গ্রামের নূরুল হকের পুত্র মঈনুল ইসলাম, লেদাই মিয়ার পুত্র এনামুল হক ও ফজলু মিয়ার পুত্র লায়েক মিয়া। এ ঘটনায় ছাতক থানায় একটি চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করা হয়েছে।

স্থানীয় একাধিক ব্যবসায়ীরা জানান, ছাতকে সুরমা, চেলা ও পিয়াইন নদীতে চলাচলরত বাল্কহেড, কার্গো ও ইঞ্জিন চালিত নৌকা থেকে নিয়মিত চাঁদাবাজি করছে একটি চক্র। চাঁদাবাজরা ইঞ্জিন চালিত ছোট নৌকা নিয়ে সকাল-সন্ধ্যা নৌ-পথে ঘুরে-ঘুরে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে নৌ-যান থেকে চাঁদা আদায় করে।

শুক্রবার জামুরা এলাকায় একটি বাল্কহেড থেকে টোলের নামে রশীদ দিয়ে জোরপূর্বক চাঁদা আদায় করার সময় স্থানীয় লোকজন ধাওয়া করে ৩ চাঁদাবাজকে আটক করে। জনতার ধাওয়া খেয়ে অন্য চাঁদাবাজরা এসময় নৌকা নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় এমভি গঙ্গা বাল্কহেডের পরিচালক জজ মিয়া বাদী হয়ে থানায় একটি চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেন। থানার ওসি মোস্তফা কামাল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close