কুলাউড়ায় ৬৫০ শিশু পেল প্রধানমন্ত্রীর উপহার

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট দুর্যোগে থমকে গেছে কর্মহীন হয়ে পড়া নিম্ন আয়ের দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের জীবন চলার পথ। তাদের পাশে সরকারের পাশাপাশি অনেক ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান, সামাজিক সংগঠন ও প্রবাসীরা মানবিক সহায়তা হিসেবে যেসব খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন তা মূলত বড়দের খাবার উপযোগী। 

এমন দূর্যোগে পুষ্টিকর খাবার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে ওই সকল দুঃস্থ ও অসহায় পরিবারের কোমলমতি শিশুরা। এজন্য তারা পুষ্টিহীনতায় ভুগছে। এবার সেই সকল পুষ্টিহীন শিশুদের জন্য সহায়তা হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উপহার শিশু খাদ্য নিয়ে এগিয়ে এসেছে কুলাউড়া উপজেলা প্রশাসন। আর এই শিশু খাদ্য সহায়তার বরাদ্দ এসেছে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে। 

বৃহস্পতিবার (২১ মে) বিকেলে কুলাউড়া পৌরসভায় অর্ধশত শিশুর জন্য খাদ্যের প্যাকেট তাদের অভিভাবকদের হাতে তুলে দেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ কে এম সফি আহমদ সলমান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ টি এম ফরহাদ চৌধুরী। এছাড়া উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে সমপরিমাণ শিশুর জন্য শিশু খাদ্যের প্যাকেট সকল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তাঁরা প্যাকেটগুলো এলাকার দুঃস্থ পরিবারের শিশুদের মাঝে বিতরণ করবেন।

দুঃস্থ ও অসহায় পরিবারের ৫ বছর থেকে ১৫ বছর বয়সী শিশুর জন্য এসব পুষ্টিকর খাবার (সুজি, সাগু, সেমাই, ডাল, চাল, তেল) সহ ৫০০ টাকা মূল্যের প্যাকেট দেয়া হয়। এছাড়া উপজেলায় ৬৯৬ পরিবারের শিশুকে ৪০০ গ্রাম ওজনের গুঁড়ো দুধ দেওয়া হয়েছে।
 
এ সময় উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র শফি আলম ইউনুছ, উপজেলা প্রকৌশলী মু. ইসতিয়াক হাসান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. শিমুল আলী, পৌরসভার প্যানেল মেয়র জয়নাল আবেদীন বাচ্চু, উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী মো. মহসিন, পৌরসভার সচিব শরদিন্দু রায়, পৌর কাউন্সিলর ইকবাল আহমদ শামীম, হারুনুর রশীদ, তানভীর আহমদ শাওন প্রমুখ।

এদিকে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে উপজেলার লংলা খাসে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের বরাদ্দ থেকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ৭০টি ভূমিহীন পরিবারসহ উপজেলার সকল ইউনিয়নে আরো ৮০০ কর্মহীন পরিবারে (চাল, সেমাই, সয়াবিন তেল, চিনি, আলু, লবন, ময়দা, সাবান) বিতরণ করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ টি এম ফরহাদ চৌধুরী বলেন, মহামারি করোনার প্রাদুর্ভাবে দুঃস্থ ও অসহায় পরিবারের কোমলমতি শিশু বাচ্চারা যেন পুষ্টিহীনতায় না ভুগে সে জন্যই প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার হিসেবে এই শিশু খাদ্য প্রদান করা হয়েছে। পুষ্টিকর এসকল খাদ্য সামগ্রী শিশুদের পুষ্টির চাহিদা পূরণে কাজ করবে। ধারাবাহিকভাবে আরো দুঃস্থ পরিবারের শিশুদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হবে।

এছাড়া লংলা খাসসহ উপজেলায় ৮০০ কর্মহীন পরিবারে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close