‘করোনা’: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু সর্বোচ্চ ২২ জন, শনাক্ত ১৭৭৩

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় আরো ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে; যা এখন পর্যন্ত এক দিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন আরো এক হাজার ৭৭৩ জন; এটিও এক দিনে সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড। ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে দেশে মৃতের সংখ্যা মোট হয়েছে ৪০৮ জন। মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২৮ হাজার ৫১১ জনে।

বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩৯৫ জন। সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত মোট পাঁচ হাজার ৬০২ জন সুস্থ হয়ে উঠলেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস বিষয়ক নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এসব তথ্য জানান অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (মহাপরিচালকের দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। তিনি জানান, গত এক দিনে যাঁরা মারা গেছেন, তাঁদের মধ্যে ১৯ জন পুরুষ, তিনজন নারী। তাঁদের মধ্যে দুজনের বয়স ছিল ৮০ বছরের বেশি। বাকিদের মধ্যে দুজনের বয়স ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে, তিনজনের বয়স ছিল ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে, ১০ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে, দুজনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে, একজনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে,  দুজনের বয়স ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে ছিল।

তাঁদের ১০ জন ঢাকা বিভাগের, আটজন চট্টগ্রাম বিভাগের, তিনজন সিলেট বিভাগের এবং একজন ময়মনসিংহ বিভাগের। ঢাকা বিভাগের মধ্যে রাজধানীর আটজন, ঢাকা জেলার একজন ও নারায়ণগঞ্জের একজন বাসিন্দা ছিলেন। চট্টগ্রাম বিভাগের মধ্যে চট্টগ্রাম জেলার চারজন, চাঁদপুরের তিনজন ও কক্সবাজারের একজন ছিলেন। সিলেট বিভাগের মধ্যে সিটি করপোরেশনের একজন এবং অন্যান্য জেলার দুজন ছিলেন। আর ময়মনসিংহ বিভাগের যিনি মারা গেছেন তিনি ময়মনসিংহ শহরের বাসিন্দা ছিলেন।

আগের দিন গত বুধবারের বুলেটিনে জানানো হয়, করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬ জন মারা গেছেন। ১০ হাজার ২০৭টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে এক হাজার ৬১৭ জনের দেহে, যা এক দিনে সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড। সে হিসাবে আগের ২৪ ঘণ্টার তুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত এবং শনাক্ত উভয়ই বেড়েছে। এর আগে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড হয়েছিল ২১ জনের। এ তথ্য জানানো হয় গত ১৮ মের বুলেটিনে।

বাংলাদেশে গত ৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম রোগীর খোঁজ মেলার পর ১০ দিনের মাথায় প্রথম মৃত্যুর তথ্য আসে।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close