‘করোনা’: সিলেটে আক্রান্ত আরও ১৩ জন,তোয়াক্কা নেই জনসাধারনের…

নিজস্ব প্রতিবেদক::

সিলেট জেলায় করোনাভাইরাসে আরও ১৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২১শে মে) সিলেটে এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে মোট ১৭৮টি নমুনা পরীক্ষার করা হয় এর মধ্যে ১৩ টির রিপোর্ট পজেটিভ আসে।।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ওসমানী হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায়।

তিনি বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় জানান, ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ল্যাবে বৃহস্পতিবার ১৭৮ জনের শরীরের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ১৩ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব ধরা পড়ে। এর মধ্যে ১৩ জনের করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে নতুন আক্রান্ত ১২ জন। বাকি একজন পূর্বের আক্রান্ত। দ্বিতীয়বার পরীক্ষা করেও তার শরীরে করোনা পজিটিভ আসেন।
আক্রান্তরা সিলেট নগর, সদর উপজেলা, ফেঞ্চুগঞ্জ, বালাগঞ্জ এবং বিশ্বনাথ উপজেলার বাসিন্দা বলে জানান ডা. হিমাংশু লাল রায়। সিলেট জেলায় এই ১৩ জনকে নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ২৩৮-এ।

এদিকে, সিলেটে প্রতিদিনের করোনা আক্রান্তের এই আশঙ্কাজনক হারকে তোয়াক্কা না করে সিলেট নগরীসহ বিভিন্ন স্থানে জামাকাপড়, জুতা ও কসমেটিকসের দোকানে মহিলা-পুরুষরা ভিড় করে ঈদের কেনাকাটা করছেন।

বৃহস্পতিবার সিলেট নগরের বন্দরবাজারস্থ হাসান মার্কেট, জিন্দাবাজার, নয়াসড়ক আম্বরখানা ও দক্ষিণ সুরমা ঘুরে দেখা গেছে, করোনা পরিস্থিতি ও আমফানের ঝড়-বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে ফুটপাত থেকে মার্কেটের দোকান- সবখানে ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড়। কোনো কোনো দোকানে তিল ধারণেরও জায়গা নেই। ভিড় করে ঈদের কেনাকাটা করছেন পুরুষ-মহিলা-শিশুসহ সব বয়েসি মানুষ। তাদের বেশিরভাগের মুখে নেই মাস্ক, হাতে নেই গ্লাভস। শারীরিক দূরত্বের তো বালাই নেই।

স্বাস্থ্যসেবা সংশ্লিষ্ট ও সচেতন ব্যক্তিদের মন্তব্য- বিধি-নিষেধ অমান্য করে এভাবে ভিড় করে কেনাকাটার জন্য মানুষের মাঝে দ্রুত করোনাভাইরাসের বিস্তার ঘটে সিলেট অঞ্চলে ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার আশঙ্কাই বেশি।

এদিকে বৃস্পতিবার হবিগঞ্জের নতুন আরও ২১, মৌলভীবাজারের ২২, সুনামগঞ্জের ৭ এবং সিলেটের ১২ জন নিয়ে সিলেট বিভাগে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫৬১ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ২৩৭ জন, সুনামগঞ্জে ৮৯, হবিগঞ্জে ১৫২ ও মৌলভীবাজার জেলায় ৮৩ জন।

এদিকে সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন ১৪৫ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ২৮ জন, সুনামগঞ্জে ৫০, হবিগঞ্জে ৫৯ জন এবং মৌলভীবাজার জেলায় ৮ জন।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close