‘করোনা’: এবার আক্রান্ত বিশ্বনাথ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

সিলেটের বিশ্বনাথে উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচও) ডা. আব্দুর রহমান করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। রোববার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মো. কামরুজ্জামান। তিনি জানান কোন উপসর্গ ছাড়া ডা. আব্দুর রহমান’র করোনা পজেটিভ আসে।

বর্তমানে তিনি ৫০ শয্যা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশনে রয়েছেন। এ নিয়ে উপজেলায় ৩ জন করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।

জানা যায়, বিশ্বনাথের ঘুড়াইল গ্রামের এক প্রসুতি নারী প্রথম করোনা শনাক্ত হন। গত ২৮শে এপ্রিল ওই মহিলা প্রসব ব্যথা নিয়ে উপজেলা হাসপাতালে আসলে চিকিৎসা দেন ডা. আব্দুর রহমান। একপর্যায়ে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ওই মহিলাকে প্রেরণ করা হয়। সেখানে ওই মহিলার নমুনা পরীক্ষা করা হলে গত ৩রা মে করোনা পজেটিভ আসে।

সেটি জানার পর ডা. আব্দুর রহমান স্ব-ইচ্ছায় গত ৪ঠা মে তার নমুনা পরীক্ষায় দিলে রোববার (১০ই মে) রিপোর্ট আসে করোনা পজেটিভ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মো. কামরুজ্জামান বলেন, উপজেলা হাসপাতালে থেকেই তিনি রোগীদের চিকিৎসা সেবার পাশাপাশি আমাদের সাথে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় করোনা প্রতিরোধে কাজ করছেন। রোববার দুপুরে ডা. আব্দুর রহমান নিজেই করোনা শনাক্ত হওয়ার বিষয়টি তাকে জানিয়েছেন। রোবাবর পুলিশ, চিকিৎসক ও নার্সসহ আরও ১৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ওসমানী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি করোনা মোকাবেলায় সবাইকে সচেতনতা বৃদ্ধি করে এবং দূরত্ব বজায় রেখে চলার পরামর্শ দেন।

এ ব্যাপারে ডা. আব্দুর রহমান বলেন, সন্দেহ ছাড়াই গত ৪ঠা মে তিনি করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা পাঠান। এরপর সাতদিনের মাথায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রোববার দুপুর ১২টার দিকে তাকে জানান, পরীক্ষায় তার করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। তবে তার শরীরে কোন উপসর্গ ছিলনা। তিনি আতঙ্কিত না হয়ে সাধারণ রোগীসহ উপজেলাবাসীকে সচেতন ও ঘরে থাকার পরামর্শও দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, নতুন ১৫ জনসহ এ পর্যন্ত (রোববার) উপজেলায় ৫৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩৬ জনের নেগেটিভ পাওয়া গেছে। আর করোনা শনাক্ত করা হয়েছে ‘ইউএইচও’, এক প্রসূতি নারী ও ১০ বছরের এক শিশুসহ মোট তিনজনের।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close