করোনার উপসর্গ নিয়ে এবার নগরীতে মারা গেলেন নারায়ণগঞ্জ ফেরত পুলিশ কনস্টেবল

নিজস্ব প্রতিবেদক ::

নারায়ণগঞ্জ শিল্প পুলিশের কনস্টেবল পদে কর্মরত এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

করোনাযোদ্ধা এ পুলিশ সদস্যের নাম ইমন আহমদ। ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার (১লা মে) রাত ৮টার দিকে মারা যান তিনি।

জানা গেছে, সম্প্রতি তার শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ জ্বর দেখা দেওয়ায় তাকে নারায়নগঞ্জ থেকে নিজ বাড়ি মৌলভীবাজারের সদর উপজেলার খলিলপুরে পাঠানো হয়। সেখানে কিছুদিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার পর অবস্থার অবনতি হলে গত ২৭শে এপ্রিল তাকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ইমনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক হিমাংশু লাল রায় বলেন, ‘ওই পুলিশ সদস্য করোনা ছিলো বলা যাবে না। ঢাকায় তার করোনা পরীক্ষা হয়েছিল। সেখানে করোনাভাইরাস ধরা পড়েনি।

২০১৮ সালের ১ম ব্যাচের পুলিশ সদস্য ইমন নারায়ণগঞ্জ শিল্প পুলিশের কনস্টেবল পদে কর্মরত ছিলেন। সম্প্রতি তার শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ জ্বর দেখা দেওয়ায় তাকে নিজ বাড়ি মৌলভীবাজারের সদর উপজেলার খলিলপুরে পাঠানো হয়। সেখানে কিছুদিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার পর অবস্থার অবনতি হলে ২৭শে এপ্রিল তাকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

মৌলভাবাজার সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম বলেন, ‘ইমন নামে ওই পুলিশ কনস্টেবলের লিভারে সমস্যা ছিল। তিনি সম্ভবত এই কারণে মারা গেছেন।’ তার লাশ বাড়িতে আনা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এখন করোনার সময়ে তার লাশ সংক্রমণ সর্তকতার সঙ্গে দাফন করা হবে।’

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close