‘ক্লাস্টার’ এলাকা থেকে গোলাপগঞ্জে এলেই করতে হবে করোনা পরীক্ষা

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি ::

করোনাভাইরাসে দেশের তিন ক্লাস্টার এলাকা ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর থেকে সিলেটের গোলাপগঞ্জে কোন ব্যক্তি এলে তাকে করোনা সনাক্তের টেস্ট করানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। একই সাথে দেশের চলমান এ লকডাউন অবস্থায় যারাই উপজেলায় প্রবেশ করবেন তারাই বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মামুনুর রহমান।

একই সাথে তাদেরকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন করা যায় কি না সেই বিষয়ে উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির অন্যান্য সদস্যদের সাথে আলোচনা করা হবে।

শনিবার (১৮ই এপ্রিল) সন্ধ্যা ৭ টায় তিনি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর ফেরত অনেকের শরীরে কোন উপসর্গ ছাড়াই করোনাভাইরাসের উপস্থিতি মিলছে। সেজন্য আমরা উপজেলার করোনা প্রতিরোধ কমিটির সাথে আলোচনা করে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি। একই সাথে আমরা প্রত্যেককে হোম কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা করছি।

তিনি আরও বলেন, করোনাভাইরাস বর্তমানে স্থানীয় কমিউনিটি পর্যায়ে ছড়িয়ে পড়েছে। সেজন্য পুরো বাংলাদেশকে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা ঘোষণা করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। এজন্য আমরা চেষ্টা করছি উপজেলাকে নিরাপদ রাখতে। এক্ষেত্রে উপজেলার জনগণকে এগিয়ে আসতে হবে। কারণ প্রত্যেক মানুষ সচেতন হলেই আমরা করোনাভাইরাস তেকে বাঁচতে পারবো।

তিনি আরও বলেন, আমরা ইতিমধ্যে দেশের ক্লাস্টার এলাকা ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর ফেরত ও অন্যান্য জায়গা থেকে যারা আসছেন তাদের তালিকা করছি। তালিকা অনুযায়ী আমরা পরবর্তীতে তাদের পরীক্ষার ব্যবস্থা ও কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করবো। এজন্য যে এলাকায়ই কোন ব্যক্তি আছেন বা আসবেন তাদের খবর জনপ্রতিনিধি বা প্রশাসনকে জানানোর জন্য উপজেলাবাসীকে আহবান জানান এ কর্মকর্তা।

এর আগে গতকাল শুক্রবার লকডাউন অমান্য করে সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার ফুলবাড়ি ইউনিয়নের ফুলবাড়ি উত্তরপাড়া, মিরাপাড়া, বারিপাড়া এলাকায় নারায়ণগঞ্জ ও বাঘাবাড়ি থেকে ৭ জন গ্রামে আসেন। এনিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। পরে উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইন মেনে চলার জন্য নির্দেশনা দেয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close