বাবা-মায়ের কবরের পাশেই শায়িত হলেন ডা. মঈন উদ্দিন

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ::

কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে বাবা- মায়ের কবরের পাশেই দাফন দেওয়া হয়েছে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দীনকে।

আজ বুধবার রাত সাড়ে টায় তার গ্রামের বাড়ি ছাতক উপজেলার উত্তর খুরমা ইউনিয়নের নাদামপুর গ্রামে তাকে মা-বাবার কবরের পাশে তার দাফন করা হয়।

মরহুমের জানাযার নামাজের ইমামতি করেন মাস্টার ইসরাফীল আহমদ। জানাজায় ৬ জন মানুষ অংশ নিতে পেরেছিলেন।

দাফনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ছাতক উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. গোলাম কবির। এর আগে ঢাকার লাশ দাফনকারী প্রতিষ্ঠান আঞ্জুমান মুফিদুল ইসলামের পক্ষ থেকে ডা. মঈন উদ্দিনকে গোসল দেয়া এবং মরদেহে কাফন পরানো হয় বলেও জানা গেছে। ওই চিকিৎসকের লাশ ঢাকায় দাফনের সিদ্বান্ত গ্রহণ করা হলেও পরিবারের ইচ্ছায় সিদ্বান্ত পরিবর্তন হয়ে গ্রামের বাড়িতে লাশ দাফন করা হয়।

এর আগে সিলেটে করোনা আক্রান্ত প্রথম রোগী ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দিন আজ বুধবার (১৫ই এপ্রিল) ভোর সাড়ে ৪টায় ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন।

প্রসজ্ঞত, গত ৫ই এপ্রিল তার শরীরে করোনা রোগ ধরা পড়ে। পরে চিকিৎকদের পরামর্শমতে তিনি বাসায় কোয়ারেন্টিন অবস্থায় চিকিৎসা নিতে থাকেন। তার শরীরিক অবস্থার উন্নতি না হলে গত ৭ই এপ্রিল তিনি নগরীর শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালে ভর্তি হন।

গত ৮ই এপ্রিল সেখান থেকে পরিবারের ইচ্ছায় চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে নেয়া হয়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় গত সোমবার হাসপাতালের লাইফ সাপোর্টে রাখা হয় তাকে। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ ভোর সাড়ে ৪টায় তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close