জনসমাগম করে বিয়ে,বর-কনেকে র‍্যাবের জরিমানা

নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণের কারণে সামাজিক অনুষ্ঠানসহ যেকোনোধরনের জনসমাগমে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সরকার। সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে ধুমধাম করে বিয়ের আয়োজন করায় ঢাকার সাভারে একটি বিয়ের অনুষ্ঠান পণ্ড করে দিয়েছে র‍্যাব।

জানা যায়, ঢাকার সাভারের সালেহপুর গ্রামে শুক্রবার দুপুরে ধুমধাম করে বিয়ের আয়োজন চলছিল। বিয়েতে এলাকার লোকজনসহ দুই ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান উপস্থিত ছিলেন। খবর পেয়ে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেন। জরিমানা করা হয় বর ও কনে পক্ষকে। সতর্ক করা হয় ইউপি চেয়ারম্যানদের।আদালত পরিচালনা করেন র‌্যাব-৪-এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনিসুর রহমান। সঙ্গে ছিলেন র‌্যাবের জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার অনু মং।

র‌্যাব-৪ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বরের বাড়ি সাভারের বনগাঁও ইউনিয়নের নগরকুণ্ডা গ্রামে। আর কনের বাড়ি পাশের আমিনবাজার ইউনিয়নের সালেহপুর গ্রামে। শুক্রবার কনের বাড়িতে বিয়ের আয়োজন চলছিল। বিয়েতে এলাকার লোকজনের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বনগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম ও আমিনবাজার ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন। বিয়ের ধুমধামের মধ্যে বিকেলে উপস্থিত হন র‌্যাব-৪-এর ভ্রাম্যমাণ আদালত। আদালত বিয়ে বন্ধ করে বর ও কনে পক্ষের আটজনকে ১০ হাজার টাকা করে ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।এ ছাড়া করোনাভাইরাসের পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে বন্ধ রাখতে উভয় পক্ষের কাছ থেকে মুচলেকা আদায় করা হয়।

এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ও আনোয়ারকে সতর্ক করার পাশাপাশি তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আইন মন্ত্রণালয়কে জানানো হয়। তাদের কাছ থেকেও আদায় করা হয় মুচলেকা, যাতে তারা বর্তমান অবস্থায় আর কোনো বিয়ের অনুষ্ঠানে সহায়তা না করেন।

আনিসুর রহমান বলেন, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে বিয়েসহ সব ধরনের অনুষ্ঠান বন্ধ করা হয়। কিন্তু দুই ইউপি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে জনসমাগম করে বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পেরে ওই গ্রামে অভিযান চালিয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়। জরিমানার পাশাপাশি দুই চেয়ারম্যানসহ বর ও কনে পক্ষকে সতর্ক করা হয়। তাদের কাছ থেকে মুচলেকা আদায় করা হয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close