করোনা সন্দেহে লাশ দাফনে বাধা! ওসি নজরুলের আবেগঘন স্ট্যাটাস ভাইরাল

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি::

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার করিমপুর ইউনিয়নের শ্রী নারায়নপুর গ্রামের রুহেল নামের এক ব্যক্তি নারায়ণগঞ্জে কর্মরত অবস্থায় ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান। সোমবার লাশ দাফনের জন্য তার নিজ এলাকা দিরাইয়ে নিয়ে আসলে কিছু মানুষের বাঁধা ও বিরোধিতায় এলাকাজুড়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। অমানবিক এমন সিদ্ধান্তে স্যোশাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

অমানবিক এমন কার্যকলাপে ক্ষুব্ধ হয়ে দিরাই থানার অফিসার ইনচার্জ কেএম নজরুল ইসলাম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি আবেগঘণ স্ট্যাটাস পোস্ট করেন। আর তাতে মুহুর্তের মধ্যে ওই স্ট্যাটাসটি ভাইরাল হয়ে যায়। সুরমা টাইমস পাঠকদের জন্য স্ট্যাটাসটি নিম্নে তুলে ধরা হল।

আমরা মুসলমান হয়ে মুসলমানের লাশ দাফনে বাঁধা দিচ্ছি। আমরা ভূলে যাচ্ছি, একদিন আমাকেও লাশ হয়ে যেতে হবে কবর দেশে। কবরের জায়গার মালিক দাবি করছি, ভেবে দেখছেন কি? আপনার মৃত্যু কিভাবে হবে, কোথায় হবে, কখন হবে আপনি নিজেও জানেন না। আপনার মৃত্যু যদি হয় করোনায়, আপনার লাশ যদি পড়ে থাকে রাস্তায়, আপনার লাশ যদি আত্নীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব কেউ দেখতে না আসে, আপনার লাশ যদি দাফন করতে না দেওয়া হয়, কি হবে আপনার লাশের? সব দায়িত্ব কি পুলিশের? আমরা কি মুসলমান হিসেবে দায়িত্ব নিতে পারি না আরেক মুসলমান ভাইয়ের লাশ দাফনের। আপসোস আমরা মুসলমান হয়ে, দাফন করতে দিচ্ছি না আরেক মুসলমান ভাইয়ের লাশ।

প্রসঙ্গ : দিরাই করোনা সন্দেহে মৃত ব্যক্তির লাশ দাফনে বাঁধা।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close