সিলেট নগরীতে ২ দিনে ২৭ টি যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ::

করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯-এর প্রাদুভার্ব থেকে সাধারণ জনগণ রক্ষা পেতে সারা বিশ্বের মত বাংলাদেশ সরকারও ব্যপক উদ্যোগ গ্রহন করেছে। এর ধারাবাহিকতায় বর্তমান সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অতি প্রয়োজন ছাড়া সড়কে গাড়ি চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখে সিএনজি ও মোটরসাইকেল যাত্রী বসানোর অভিযোগে যানবাহন গুলো বর্তমান নির্দেশিত আইন না মানায়, সিলেট নগরী থেকে সিএনজি, মোটরসাইকেল সহ বেশ কয়েকটি স্থান থেকে ২ দিনে ২৭ টি যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা করে ৭ হাজার ৯ শত টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

প্রথম দিন ও দ্বিতীয় দিনে এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন সিলেট সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রট সুমন্ত ব্যানার্জি। ৩ এপ্রিল শুক্রবার শাহজালাল  বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে সামন থেকে ১১ যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে ৪ হাজার ২ শত টাকা ও ২ এপ্রিল বৃহস্পতিবার টুকের বাজার ও তেমুখী পয়েন্ট থেকে ১৬ টি যানবাহন আটক করে মামলা দায়ের করে ৩ হাজার ৭ শত টাকা জরিমানা করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, সিলেট সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রট সুমন্ত ব্যানার্জি তিনি জানান, বর্তমানে সরকার করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় জনগণের প্রাণহানী থেকে রক্ষা করতে সর্বস্থরের সরকারি কর্মকর্তারা দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছে।

করোনার ভাইরাস থেকে সাধারণ জনগণকে নিরাপদে রাখতে মানুষের দূরত্ব রাখাটা সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ কাজ। সকল যানবাহনকে অতি প্রয়োজন ছাড়া গাড়ি নিয়ে রাস্তায় বের না হতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। জরুরি প্রয়োজনে একটি সিএনজিতে মাত্র ১ জন যাত্রী নিয়ে চলাচল করতে পারবে। কিন্তুু তারা সরকারের দেওয়া নির্দেশ অমান্য করায় ২ দিনে ২৭ টি যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে সর্বমোট ৭ হাজার ৯ শত টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এই মহামারি করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তি পেতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল করা ছাড়া আর কোন বিকল্প উপায় নাই। নিরাপদে থাকতে হলে সব সময় ঘরে অবস্থান করতে হবে। আমরা সকল মানুষ যদি সচেতন হই তাহলে এই কঠিণ পরিস্থিতি থেকে অচিরে মুক্তি পাব।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close