এপ্রিল-মে-জুনের বাড়িভাড়া মওকুফের দাবি

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে তিন মাসের বাড়িভাড়া মওকুফের দাবি জানিয়েছে ভাড়াটিয়া পরিষদ। বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) সংগঠনটির সভাপতি মো. বাহারানে সুলতান বাহার এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘বিশ্বে আজ করোনার মহামারি চলছে। তেমনি এক অবস্থায় বাংলাদেশের ভাড়াটিয়া জনগণ এক দুর্বিষহ জীবনযাপন করছে। আমরা ভাড়াটিয়া পরিষদের পক্ষ থেকে ২১ মার্চ এক বিবৃতিতে বলেছিলাম, বাড়িভাড়া মওকুফের জন্য।’

তিনি বলেন, ‘ইতিমধ্যে ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম, সিলেটের মেয়র আরিফুল ইসলাম, চট্টগ্রামের মেয়র নাছির উদ্দিন, চট্টগ্রামের ডিসি, এমনকি দেশের খ্যাতিমান অনেক ব্যক্তি ও বাড়িওয়ালা বলেছেন ভাড়া নেবে না। আমরা তাদের স্বাগত জানাই।’

বাহার আরও বলেন, ‘করোনার কারণে লকডাউন (সাধারণ ছুটি) হওয়ায় তারা কোনো কাজকর্ম করতে পারছে না, বাইরে বের হতে পারছে না। এ অবস্থায় জনশূন্যতার কারণে রাজধানীসহ সারাদেশে ব্যবসা-বাণিজ্য স্থবির হয়ে পড়েছে। যে শ্রমিকরা দৈনিক ভিত্তিতে কাজ করতেন তারা বেকার হয়ে পড়েছেন। এরই মধ্যে দেখা দিয়েছে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতি। একদিকে করোনাভাইরাসের আতঙ্ক, অন্যদিকে অর্থের অভাব। সাধারণ মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছে।’

এ পরিস্থিতি থেকে জনগণকে রেহাই দিতে এপ্রিল, মে, জুন এ তিন মাসের ভাড়াসহ বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস ও ট্যাক্স মওকুফ করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর (শেখ হাসিনা) নির্বাহী আদেশ জারির দাবি জানান তিনি।

উল্লেখ্য, দেশে করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে প্রথম দফায় ২৬ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার। পরে এই ছুটি ৯ এপ্রিল তথা শুক্র ও শনিবার মিলিয়ে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close