”পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ” তা আবারও প্রমান করলেন কোম্পানীগঞ্জের ওসি সজল কানু

নিজস্ব প্রতিবেদক ::

”পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ” এই স্লোগানের যথার্থতা আবারও প্রমাণ করলেন সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সজল কুমার কানু। তাঁর থানা এলাকায় করোনাভাইরাসের কারণে ঘরবন্দি গরিব মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিলেন থানার পুকুরের ছোট-বড় মাছ।

এমন মহানুভব কাজে তাঁর প্রতি গত দু’দিন থেকে অহর্নিশ বর্ষিত হচ্ছে তার থানার গরিব মানুষের দোয়া এবং তিনি ভাসছেন কোম্পানীগঞ্জের আবাল-বৃদ্ধ-বণিতার অবিরাম প্রশংসায়। 

জানা গেছে, গত ৩০শে মার্চ কোম্পানীগঞ্জ থানার পুকুর হতে জেলে দিয়ে ছোট-বড় সব ধরণের মাছ তুলে করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে ঘরে আবদ্ধ খেটে খাওয়া মানুষের মধ্যে তা বিলিয়ে দিয়েছেন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সজল কুমার।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার টুকের বাজার, বৌ-বাজার, গাংগের পাড়, ভোলাগঞ্জ গুচ্ছগ্রাম এলাকার শ্রমিক, ভিক্ষুক, প্রতিবন্ধি, কর্মহীন ও দরিদ্র পাচঁ শতাধিক মানুষের মাঝে থানার পুকুরের এসব মাছ বিতরণ করেন ওসি।

মাছ বিতরণকালে তিনি বলেন, এসব মাছ দিয়ে কী হবে? যদি এ দু:সময়ে মানুষ এগুলো খেতে না পারে?

এলাকার লোকজনের দেয়া বক্তব্যে অনেকেই বলেছেন,  কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি যে দয়াশীল ও ব্যতিক্রমধর্মী কাজটি করলেন তা সত্যিই প্রসংশনীয়। কাজটি অন্য আরো ১০ জন পুলিশ কর্মকর্তার জন্য গর্বের ও শিক্ষণীয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close