সিলেটে ভিক্ষুকদের সহযোগিতায় কাজ করবে ‘পরিবর্তন’

করোনাভাইরাস নিয়ে দুর্যোগপূর্ণ মুহুর্তে সিলেটের ভিক্ষুকদের পাশে থাকতে সামাজিক সংগঠন ‘পরিবর্তন’। ভিক্ষুক সম্প্রদায়ের খাদ্য সহায়তা এবং তাদের মধ্যে সচেতনতা নিয়ে সংগঠনের পক্ষ থেকে বেশ কিছু কর্মসুচী গ্রহণ করা হয়েছে। ১ এপ্রিল বুধবার সংগঠনের চেয়ারম্যান মিসবাহ আহমদ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই কর্মসুচির উল্লেখ করা হয়। বিবৃতিতে সিলেটে ও করোনা ভাইরাস সময়কালীণ গৃহবন্দী নিম্নবিত্ত ও দিনমজুর শ্রেণীর খাদ্য সহায়তা প্রদানে বাংলাদেশ সরকার,স্থানীয় প্রশাসন এবং এলাকাভিত্তিক ও বিভিন্ন সংগঠন যারা এগিয়ে আসছে তাদেরকে পরিবর্তন এর পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জানানো হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে মিসবাহ আহমদ বলেন, যে সমাজের একটি শ্রেণীর মানুষ যারা ভিক্ষুক সম্প্রদায় তারা সমাজের সবচেয়ে বেশি অবহেলিত এবং নিগৃহীত। ‘পরিবর্তন’ সিলেটকে ভিক্ষুকমুক্ত করার লক্ষ্যে বিগত এক বছরের বেশী সময় কাল থেকে নিজস্ব অর্থায়নে সিলেটের ভিক্ষুক জরিপের মাধ্যমে তালিকাভুক্তি থেকে শুরু করে অন্যান্য কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে ।

এরই ধারাবাহিকতায় সংগঠনটি তিন বছর সময়কাল নির্ধারণ করে ভিক্ষুকদের পুনর্বাসন ও কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডক্টর এ কে আব্দুল মোমেনের নাম উল্লেখ করে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভিক্ষুকমুক্ত সিলেট অঙ্গীকার বাস্তবায়নে তিনি অঙ্গিকারাবদ্ধ এবং সিলেটের উন্নয়ন পরিকল্পনায় বিষয়টি অন্তর্ভুক্তি করে তিনি নিজে এই কার্যক্রমে সজাগ দৃষ্টি রাখছেন। কিন্তু দেশের চলমান করোনা পরিস্থিতিতে এই কার্যক্রম কিছুটা হলেও ব্যাঘাত ঘটেছে। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসলে এই কার্যক্রম আবারো চলমান থাকবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

তিনি বর্তমান সময়ে করোনা পরিস্থিতিতে সংগঠনের কিছু করণীয় তুলে ধরে বলেন, সংগঠনের পক্ষ থেকে সিলেট শহরে ওয়ার্ড ভিত্তিক অনলাইন কমিটি করে আমাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে পরিবর্তন।
তবে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সিলেটের ভিক্ষুক শ্রেণীকে সহযোগিতা করা একান্ত কর্তব্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই সরকারের পাশাপাশি বিত্তশালী সবাই এগিয়ে এসে পরিবর্তন’র সাথে যুক্ত হয়ে এই কার্যক্রম দ্রুত ত্বরান্বিত করার আহবান জানান। তিনি সংগঠনের সংশ্লিষ্ট সকল কার্যকরী সদস্য ,সাধারণ সদস্য,আজীবন সদস্য এবং দেশে ও বিদেশে পরিবর্তন’র শুভাকাঙ্খীদের পাশাপাশি সমাজের বিত্তশালী ও ধনাঢ্য ব্যক্তিদের সমাজের সবচেয়ে অবহেলিত এই ভিক্ষুক সম্প্রদায়কে সহযোগিতা করার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন ।

পরিবর্তন চেয়ারম্যান বলেন, যেহেতু বিগত দিনের জরীপ কার্যে সংগঠনের কাছে একটি নির্দিষ্ট তালিকাভূক্তি ভিক্ষুকের নাম ও মোবাইল নাম্বার রয়েছে [সক্ষম /অক্ষম / অসুস্থ বিভিন্ন বয়সের ] সেহেতু আমরা দুটি পদ্ধতিতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে চাই।

প্রথমত: যারা নিজস্ব ব্যক্তিগত উদ্যোগে ভিক্ষুকদের সহযোগিতা করতে চাচ্ছেন তারা আমাদের কাছ থেকে ভিক্ষুকের নাম এবং মোবাইল নাম্বার নিয়ে সরাসরি তাদেরকে সহযোগিতা করতে পারেন
দ্বিতীয়ত: পরিবর্তন’র কার্যকরী কমিটির জেনারেল সেক্রেটারি শাহানা চৌধুরী বিকাশ নাম্বার-০১৭৯৫৪৭৯৩৪২, ভাইস চেয়ারম্যান- আখতারুজ্জামান চৌধুরী, বিকাশ নাম্বার ০১৬১২০৭৯৪৪৬ এই দুই পার্সোনাল বিকাশ নাম্বারে আপনাদের সহযোগিতা পাঠাতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।ভিক্ষুকদের সহযোগিতার এই কার্যক্রম করোনা পরিস্থিতি শান্ত হওয়া পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।দানকৃত অর্থ এবং ভিক্ষুকদের জন্য খরচকৃত অর্থ সাহায্য স্বচ্ছতার জন্য পরবর্তীতে উপস্থাপন করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন তিনি।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close