পহেলা বৈশাখ অনুষ্ঠান স্থগিতের নির্দেশ

সারাদেশে করোনাভাইরাসের ফলে সৃষ্টি পরিস্থিতির কারণে জনসমাগম এড়াতে পহেলা বৈশাখ ও পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের বৈসাবির সব ধরনের অনুষ্ঠান স্থগিতের নির্দেশ দিয়েছে সরকার।

বুধবার (১ এপ্রিল) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এই নির্দেশ দেওয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনাভাইরাস রোগ (কোভিড-১৯)-এর বিস্তার রোধকল্পে জনসমাগম পরিহার করার লক্ষে আসন্ন ১লা বৈশাখ ১৪২৭ তারিখ বা এই সময়ে সকল ধরনের অনুষ্ঠান, কার্যক্রম (তিন পার্বত্য জেলার লবসাবিসহ) স্থগিত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ ক্রমে অনুরোধ করা হলো।

এর আগে মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে ঝুঁকি এড়াতে পহেলা বৈশাখের সব অনুষ্ঠান না করার নির্দেশ দিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এদিন সকালে দেশের ৬৪টি জেলার জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে আয়োজিত ভিডিও কনফারেন্সে এই নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, এ বছরের নববর্ষের সব অনুষ্ঠান বন্ধ থাকবে।

আর মাত্র দুই সপ্তাহ পরেই বাঙালি জাতির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। প্রতিবছর বাঙালিরা বেশ জাঁকজমকভাবে পালন করে নববর্ষের দিনটি। বর্ণিল উৎসবে মেতে ওঠে পুরো দেশ।

দেশবাসী গানে গানে, আনন্দ আয়োজনে নতুন বছরটিকে বরণ করে নেয়। ভোরে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে নতুন বছরকে স্বাগত জানানোর আয়োজনে মেতে ওঠে পুরো বাঙালি জাতি। কিন্তু এবার সেই আয়োজন করতে পারবে না বাঙালি। চীনের উহান শহর থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া নভেল করোনাভাইরাসের কারণে এবার নববর্ষের অনুষ্ঠান হচ্ছে না। ঝুঁকি এড়াতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নববর্ষের সব অনুষ্ঠান বন্ধের নির্দেশ দেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close