‘করোনা’: লন্ডনে সাত সিলেটীর মৃত্যু

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

যুক্তরাজ্যের লন্ডনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আট বাংলাদেশি।৮ মার্চ থেকে শনিবার পর্যন্ত মারা যাওয়া এই আট বাংলাদেশির মধ্যে সাতজনই সিলেট বিভাগের বাসিন্দা।

শনিবার আলম আশরাফ (৫০) নামের এক বাংলাদেশি হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়া অবস্থায় মারা যান। তার পরিবার জানায়, গত পাঁচ মাস ধরে তিনি ক্যানসারে আক্রান্ত ছিলেন। দুই সপ্তাহ আগে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। তাকে লন্ডনের ইউসিএল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। বাংলাদেশে তিনি টাঙ্গাইল জেলার বাসিন্দা ছিলেন।

এর আগে শুক্রবার লন্ডনের স্থানীয় সময় সকাল ৬টায় মো. মনির উদ্দিন (৬০) নামের এক ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তিনি শহরটিতে প্রবাসী বালাগঞ্জ-ওসমানীনগর অ্যাডুকেশন ট্রাস্ট নামের একটি প্রতিষ্ঠানের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য ছিলেন।তিনি বালাগঞ্জের উমরপুর ইউনিয়নের মান্দারুকা গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন।

বুধবার মারা গেছেন হাজী ফখরুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি। রয়্যাল লন্ডন হাসপাতালে ওই দিন সকাল সাড়ে ১০টায় তার মৃত্যু হয়। তিনি পূর্ব লন্ডনের ডকল্যান্ডে বসবাস করতেন।

মঙ্গলবার সকাল ১০টায় একই হাসপাতালে মারা যান খসরু মিয়া (৪৯) নামের এক ব্যক্তি। তিনি টাওয়ার হ্যামলেটসের হোয়াইটচ্যাপেল রোডে সেইন্সবারী সামনে সবজির ব্যবসা করতেন। জগন্নাথপুর উপজেলার শাহারপাড়া আটঘর গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন তিনি। এর আগে ২৩ মার্চ ওই হাসপাতালে মৃত্যু হয় টাওয়ার হ্যামলেটসের স্যাটেল স্ট্রিটের বাসিন্দা জমশেদ আলীর (৮০)। তিনি বিয়ানীবাজার উপজেলার ছনগ্রামের বাসিন্দা ছিলেন।

১৬ মার্চ লন্ডনের গ্রেট অরমন্ড হাসপাতালে মারা যান মৌলভীবাজারের মাহমুদুর রহমান। এর আগে ১৩ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় টাওয়ার হ্যামলেটস এলাকার অভিবাসী রেহান উদ্দিনের। ৮ মার্চ লন্ডনের ম্যানচেস্টারে প্রথম এক বৃটিশ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়।

পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ডের তথ্য অনুযায়ী, লন্ডন শহরের টাওয়ার হ্যামলেটসের বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকায় এখন পর্যন্ত ১২৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তারা সবাই চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close