রাজধানীর ডেল্টা হাসপাতালের চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত, কোয়ারেন্টিনে পরিচালক

রাজধানীর টোলারবাগে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিকে চিকিৎসাসেবা দেওয়া এক চিকিৎসক এ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। এ ছাড়া কোয়ারেন্টিনে আছেন ওই হাসপাতালের পরিচালক।

আক্রান্ত ওই চিকিৎসক বর্তমানে উত্তরার কুয়েত-মৈত্রী হাসপাতালে আইসোলেশনে আছেন।জানা যায়, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শনিবার টোলারবাগে ওই বৃদ্ধের মৃত্যু হয়। এর পর ওই হাসপাতালের চার চিকিৎসক, ১২ নার্স ও তিনজন কর্মীকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। তাদেরই একজন পরীক্ষায় ‘করোনাভাইরাস পজিটিভ’ হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন।

আক্রান্ত ওই চিকিৎসক জানিয়েছেন, আইইডিসিআরে নমুনা পরীক্ষায় তার নভেল করোনাভাইরাস ধরা পড়েছে। তার শরীর কিছুটা দুর্বল। শ্বাসকষ্ট হচ্ছে।

এ ছাড়া অসুস্থবোধ করায় রোববার থেকে হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন ডেল্টা হাসপাতালের পরিচালক ডা. বদিউজ্জামানও।টোলারবাগের বৃদ্ধকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া ওই চিকিৎসকের শারীরিক সমস্যা ধরা পড়ে শনিবার সকাল থেকে।

রোববার দুপুরের দিকে শ্বাসকষ্ট শুরু হলে তাকে কুয়েত-মৈত্রী হাসপাতালে নেয়া হয়। তার পরিবারের সদস্যরা এখনও হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন।

প্রসঙ্গত, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বিশ্বময় ছড়িয়ে পড়েছে। বাংলাদেশে ৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এই ভাইরাসে এখন পর্যন্ত ২৭ জন আক্রান্ত হয়েছেন। আর মৃত্যু হয়েছে দুজনের।৮ মার্চ প্রথম বাংলাদেশে তিনজন এ রোগে আক্রান্ত হওয়ার খবর জানায় আইইডিসিআর। তার ১০ দিন পর ১৮ মার্চ সত্তরোর্ধ্ব এক ব্যক্তির মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী মেয়ের মাধ্যমে তার দেহে ভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছিল। সেটিই ছিল বাংলাদেশে প্রথম মৃত্যু।করোনাভাইরাসের ব্যাপক সংক্রমণ ঠেকাতে শনাক্ত রোগীদের সংস্পর্শে এসেছেন, এমন সবাইকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। বিদেশফেরত সবাইকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

১৯০টিরও বেশি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়া কোভিড-১৯ রোগকে ইতিমধ্যে বৈশ্বিক মহামারী ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা-হু। এতে মৃত্যুর সংখ্যা ১৫ হাজার ছাড়িয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close